দিনাজপুরের হাকিমপুর, খানসামা ও কাহারোল উপজেলায় পৃথকভাবে বিদেশ ফেরত ৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বাড়িতে অবস্থান করার জন্য পরামর্শ দিয়েছে নিজ নিজ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

বুধবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা নামজুস সাঈদ।

তিনি জানান, গত কয়েকদিনে বিভিন্ন দেশ থেকে হাকিমপুরে আসা ৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। প্রতিদিন স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকরা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাদের সাথে যোগাযোগ করে খোঁজখবর নিচ্ছেন। ওই ৫ জনকে ঘরের বাইরে চলাফেরা না করে বাসায় অবস্থান করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। কাতার, ওমান, লেবান, কুয়েত, সৌদিআরব থেকে তারা এসেছেন।

এদিকে, খানসামা উপজেলায় এক ওমান প্রবাসী মহিলা ও এক দুবাই প্রবাসী পুরুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

মঙ্গলবার থেকে তাদেরকে হোম কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের কোন উপসর্গ না থাকলেও বিদেশ ফেরত হওয়ায় তাদেরকে নিজ নিজ বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামসুদ্দোহা মুকুল। করোনা প্রতিরোধে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল টিম লিডার ডা. ফারুক রিজওয়ান জানান, প্রবাসী দুজনের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ, পরামর্শ ও দিক-নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

অন্যদিকে, দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় ইতালি থেকে আসা একজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র বিষয়টি জানায়।

কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউল আযম জানান, গত ১০ মার্চ কাহারোল উপজেলায় দীর্ঘ ২১ বছর পর ইতালি থেকে একজন আসেন। তাঁর বয়স ৪৩ বছর। বিমান বন্দরে পরীক্ষায় তার শরীরে কোনো ভাইরাস না পাওয়ায় তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বাড়িতে আসা মাত্রই কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার
নির্দেশনা দেয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য