আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার ভবনাপুর গ্রামের হিরু সরকারের পুত্র তাজদিকুল ইসলাম একজন বখাটে ও ইয়াবাসেবী। সে একই গ্রামের প্রতিবেশী বুলবুল সরকারের সতের বছরের কলেজ পড়–য়া মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সখ্যতা গড়ে তোলে এবং মেয়েকে দিনের পর দিন তাজদিকুল ইয়াবা সেবন করিয়ে ধর্ষণ করতো এবং তা কৌশলে ধারণ করে রেখে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখাতো। এক পর্যায়ে প্রায় ৪ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই ছাত্রী। বয়স কম হওয়ায় প্রাকৃতিকভাবেই গর্ভপাত ঘটলে রক্তশূন্যতা দেখা দেয়। বর্তমানে সে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, হিরু সরকারের পুত্র তাজদিকুল ইসলাম একজন মাদক ও ইয়াবাসেবী। সে দীর্ঘদিন থেকে তার প্রতিবেশী বুলবুল সরকারের কলেজ পড়–য়া মেয়ের সঙ্গে প্রথমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক মেলামেশা শুরু করে এবং তাজদিকুল কৌশলে মেলামেশার অশ¬ীল ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে রাখে। মেয়ে তাজদিকুলের সঙ্গে মিশতে না চাইলে সে অশ¬ীল ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখাতো। নেশার টাকা যোগার করতে না পারলে তাজদিকুল মেয়েকে দিয়ে তার বাবার কাছ থেকে মোবাইলে ধারণ করে রাখা অশ¬ীল ভিডিও ইন্টারনেটে ছাড়ার হুমকি দিয়ে টাকা আদায় করতো।

গত ২ মার্চ মেয়ের বাবার নিকট ৫০ হাজার টাকা দাবি করে এবং না দিলে তার মেয়ের অশ¬ীল ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়াসহ তার মেয়েকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় দুইজনকে আসামী করে গাইবান্ধা সদর থানায় একটি মামলা (নং- ১৮) দায়ের করা হলে পুলিশ আসামী তাজদিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে মেয়ের বাবা বুলুবুল সরকারকে আসামী পক্ষ মামলা তুলে নেয়ার জন্য বিভিন্ন প্রকার হুমকি-ধামকি প্রদর্শন করছে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি জানান, তদন্ত নিবিরভাবে করা হচ্ছে, তদন্তের স্বার্থে এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।

অপরদিকে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে ভর্তি অসুস্থ কিশোরী সম্পর্কে কনসালট্যান্ট ডাঃ তাহেরা আখতার মনি জানান, বয়স কম হওয়ায় অসময়ে গর্ভপাত হওয়ায় রক্তশূন্যতা দেখা দেখা দিয়েছে। রোগীকে নিবির পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য