কুড়িগ্রাম জেলায় এখনো করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া না গেলেও আগাম সতর্কতা হিসেবে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে করোনা ভাইরাস আইসোলেশন ওয়ার্ড স্থাপন করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিভাগ কর্মীদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি, সুরক্ষা ও আতংকিত না হয়ে কিভাবে চিকিৎসাসেবা দেয়া যাবে এ ব্যাপারে সরকারের স্বাস্থ্যবিভাগ এই উদ্যোগ গ্রহন করেছে।

স্বাস্থ্যবিভাগ সূত্র জানায়, সন্দেহভাজন ও আলামত থাকতে পারে এমন পুরুষ ও নারী রোগীদের চিকিৎসায় হাসপাতালে পৃথকভাবে আইসোলেশন ওয়ার্ড খোলা হয়েছে। নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এমন ধরণের রোগী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তার জন্য আলাদা সুরক্ষার ব্যবস্থাও গ্রহন করা হয়েছে।

সেই রোগীর শরীর থেকে প্রথমে নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় রোগতত্ত্ব গবেষণা ইনস্টিটিউটে পাঠিয়ে দেয়া হবে। হাসপাতালের অন্যান্য সাধারণ রোগীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে জেলা পর্যায়ে এই উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্যবিভাগ।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে এমন ব্যবস্থা চোখে পরেছে দর্শনার্থীসহ আগত লোকজনের দৃষ্টিতে।

এ বিষয়ে হাসপাতালের তত্¦াবধায়ক ডা. আবু মো: জাকিরুল ইসলাম জানান, প্রথমে নিজের সুরক্ষা নিশ্চিত করে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের কিভাবে সেবা প্রদান করা যাবে সে বিষয়ে ডাক্তার, নার্স ও সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও আইইসিসিআর কর্তৃক নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করছে হাসপাতাল কর্তপক্ষ। করোনা নিয়ে আতংকিত না হয়ে সবাইকে সতর্ক ও সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য