ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় দশম শ্রেণির স্কুলছাত্রীতে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় তার সৎ মামাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের বরুনাগাঁও ঘাটপাড়া এলাকা থেকে ২২ বছর বয়সী সোহাগ চন্দ্র বর্মনকে তারা গ্রেপ্তার করেন।

সোহাগ সদর উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের সিংগিয়া সরকারপাড়া গ্রামের ধীরেন চন্দ্র বর্মনের ছেলে এবং সে নিহত স্কুলছাত্রীর সৎ মামা।

নিহত শ্রাবণী রাণী (১৪) আকচা ইউনিয়নের আশ্রমপাড়া গ্রামের ভবেশ চন্দ্র বর্মনের মেয়ে এবং শহরের সিএম আইয়ুব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।

এ ঘটনায় শ্রাবণীর বাবা ভবেশ চন্দ্র বর্মন বাদী হয়ে সোহাগ এবং অজ্ঞাত পরিচয় আরও কয়েকজনকে আসামি করে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলার বরাতে ওসি বলেন, “সোহাগ প্রায়ই শ্রাবণীদের বাড়িতে যাতায়াত করত। বুধবার সন্ধ্যায় সোহাগ আরও কয়েকজন শ্রাবণীদের বাড়ি যায়। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তারা শ্রাবণীকে গলাকেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। “

সোহাগ হত্যার কথা স্বীকার করেছেন জানিয়ে এ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য