ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়নে ঘরের ভেতর থেকে শ্রাবণী রাণী রায় (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে ইউনিয়নের আশ্রমপাড়া এলাকায় ওই ছাত্রীর বাড়ির একটি ঘর থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত শ্রাবণী রাণী আশ্রমপাড়া এলাকার ভবেশ রায়ের মেয়ে। সে ঠাকুরগাঁও সিএম আইয়ুব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে স্থানীয়রা চেয়ারম্যান কে ফোন করে বিষয়টি জানায়। পরে ঘটনাস্থলে এসে তার গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে কী কারণে এই হত্যাকান্ড ঘটেছে সেটি বলা যাচ্ছে না। ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ।

আকচা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সুব্রত কুমার জানান, আমার পরিষদের ইউপি সদস্য খবর দিলে আমরা ঘটনাস্থলে আসি। পরে পুলিশকে খবর দেই। শ্রাবণী রাণ কে যখন হত্যা করা হয় তখন শুধু তার দাদা বাসায় ছিল। তার বয়স ৮৫ বছর তিনি অসুস্থ্য এক জন ব্যাক্তি। আর তার মা ও বাবা দুজনেই বাড়ির বাইরে ছিল।

হত্যাকারিরা ঠিক এ সময়টাতে শ্রাবণী রাণ কে হত্যার পর পালিয়ে যায়। শ্রাবণীর এমন মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তার পরিবার ও পুরো এলাকায়। এ ঘটনায় হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি করেছেন স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়না তদন্তের পর লাশ নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সদর থানার ওসি মোঃ তানভিরুল ইসলাম ইসলাম জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছি। ময়না তদন্তের পর হত্যার ক্ষত ও অন্যান্য বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় এখনও সদও থানায় কোন মামলা হয়নি। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। আমরা আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যাকারিদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান ওসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য