ইরানের পার্লামেন্ট সদস্যদের ৮ শতাংশই নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে দেশটির ডেপুটি স্পিকার আব্দুল রেজা মিসরি জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার তেহরানে সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘মজলিস’ বা পার্লামেন্টের ২৯০ সদস্যের মধ্যে ২৩ জনের এই ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনিকে লেখা পার্লামেন্টের স্পিকার আলী লারিজানির একটি চিঠিতে এই চিত্র উঠে এসেছে বলে জানান তিনি।

ওই চিঠিতে পার্লামেন্ট সদস্যদের প্রতি জনসাধারণের সংস্পর্শে না যাওয়ারও আহ্বান জানানো হয়েছে।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে এখনও রহস্য হয়ে থাকা নভেল করোনাভাইরাস প্রথম দেখা দেয় চীনের উহান প্রদেশে, ডিসেম্বরের শেষ দিকে। এরপর বিভিন্ন দেশে তা ছড়িয়েছে।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ইরানের কওম শহরে প্রথম নভেল করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়।

এরপর এরইমধ্যে দেশটিতে এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা দুই হাজার ৩৩৬ জনে পৌঁছেছে। আর এই ভাইরাসে প্রাণ গেছে ৭৭ জনের, যাদের মধ্যে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনির একজন উপদেষ্টাও রয়েছেন।

নভেল করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে চীনে, ২ হাজার ৯৪৩ জন। তার বাইরে এই রোগে মৃত্যুর সংখ্যা ইরানেই সবচেয়ে বেশি।

ইরানে করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবর প্রকাশের সপ্তাহখানেকের মধ্যেই দেশটির উপ স্বাস্থ্য মন্ত্রী ইরাজ হারিরচি এবং তেহরানের এক সংসদ সদস্য এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। তারপর তাদের বিষয়ে আর কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য