দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে স্বামীর ছুড়ে দেওয়া এসিডে জ্বলছে যাওয়া গৃহবধু রিয়া বেগমের পাশে দাঁড়ালেন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম ।

আজ সোমবার দুপুরে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে গিয়ে শরীরির জ্বলছে যাওয়া গৃহবধু রিয়া বেগমে চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন । উন্নত চিকিৎসা প্রদানের জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করেন । এ সময় তার পরিবারের নিকট নগদ আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেন ।

জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম গৃহবধু রিয়ার সাথে সেই কি ঘটনা ঘটেছিল তা তিনি শুনেন এবং পরিবারকে বিচার প্রদানের আশ্বাস প্রদান করে বলেন, এসিড নিক্ষেপকারী স্বামী তানভীরুল হাসান রাহুলকে আইনের আওতায় এনে সব্বোর্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলেও তিনি পুলিশ বাহিনীকে নির্দেশ প্রদান করেন ।

উল্লেখ্য যে শনিবার দিবাগত রাতে দিনাজপুরের বানিজ্য মেলা থেকে গৃহবধু রিয়া বেগম ও তার মা এবং ভাবী মিলে অটো রিকশা যোগে নিজ বাড়ী সুইহারী মাঝাডাঙ্গা যাওয়ার পথে হিরাহার পাকা রাস্তার উপর অটো রিকশা থামিয়ে গৃহবধু রিয়ার স্বামী তানভীরুল রহমান রাহুলসহ আরোও ৬জন গৃহবধু রিয়ার মা ও ভাবী কে অটো রিকশা থেকে নামিয়ে বেদম পিটিয়ে আহত করে।

এই ঘটনায় অটো রিকশা থাকা গৃহবধু রিয়া বেগম এগিয়ে আসলে তার স্বামী রাহুল ও তার সাথে আরোও ৬ মিলে গৃহবধূকে এসিড নিক্ষেপ করে । এতে করে গৃহবধু রিয়া বেগমের পিঠ ও পায়ের দিকে পুড়ে যায়। বর্তমানে গৃহবধু দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছে । এই গটনায় ভিকটিমের ভাই বাদি হয়ে এসিড নিক্ষেপ আইনে ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন

এই ঘটনায় পুলিশ তাৎক্ষনিক ভাবে দেবর ও ননদকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে। এই ঘটনার মুল হোতা পাষন্ড স্বামী তানভীরুল রহমান রাহুল (২৬) পলাতক ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য