করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পরা প্রতিরোধ করতে সতর্কতা হিসেবে বিদেশীদের জন্য ওমরাহ করার সুবিধা স্থগিত করেছে সৌদি আরব।

এছাড়া পর্যটন ভিসা থাকা সত্ত্বেও করোনাভাইরাস ধরা পরেছে এমন এলাকা থেকে আসা বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের সৌদি আরবে প্রবেশ না করতে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

তবে এক্ষেত্রে নির্দিষ্ট করে দেশগুলির নাম উল্লেখ করা হয়নি।

মক্কায় ওমরাহ বন্ধ করার পাশাপাশি পবিত্র নগরী মদিনায়ও প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে।

ইসলামের নবী মুহাম্মদের জন্মস্থান ইসলামের অন্যতম পবিত্র শহর হিসেবে বিবেচিত মক্কায়, আর তাঁর কবর মদিনা শহরে। তাই মদিনায়ও প্রচুর মুসলমান ভ্রমণ করেন ধর্মীয় কারণে।

তবে জুলাই মাসে আসন্ন হজে যেতে আগ্রহীদের উপর এই স্থগিতাদেশ কোন প্রভাব ফেলবে কিনা, সেটি এখনো পরিষ্কার নয়।

সৌদি আরবে প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ মুসলমান উমরাহ ও হজ পালন করেন। গত বছর প্রায় ২৫ লক্ষ মুসলমান হজ পালন করেছিলেন।

সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সাময়িকভাবে এসব নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। তবে কতদিন এসব নিষেধাজ্ঞা ও স্থগিতাদেশ থাকবে, সেটি বলা হয়নি।

সৌদি আরব বিদেশী পর্যটক বাড়াতে সম্প্রতি বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। দেশটির কর্মকর্তারা বলছেন, গত অক্টোবর থেকে চার লক্ষের মতো টুরিস্ট ভিসা ইস্যু করা হয়েছে।

সৌদি আরবে এখনো করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি। তবে প্রতিবেশী দেশ কুয়েত, বাহরাইন, ইরাক ও আরব আমিরাতে করনোভাইরাসে আক্রান্ত বেশ কিছু মানুষের সন্ধান পাওয়া গেছে।

আর সে কারণেই সৌদি আরব বাড়তি সতর্কতা হিসেবে কড়াকড়ি আরোপ করেছে বলে বলা হচ্ছে।

তবে বিদেশে অবস্থান করা সৌদি নাগরিকেরা দেশে প্রবেশ করতে পারবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য