দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বাংলাদেশে দারিদ্রোর হার অনেক কমেছে। কিন্তু ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠী ও দলিত এবং আদিবাসী সম্প্রদায়ের মতো প্রান্তিক ও বিচ্ছিন্ন জনগোষ্ঠীর মানুষ এখনও দারিদ্রোর ফাঁদে আটকা পরে আছে। এদের পিছনে ফেলে রেখে উন্নয়ন করলে তা কখনই টেকসই হবে না। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন করতে হলে সমাজের কোন জনগোষ্ঠীকেই পিছনে ফেলে রাখা যাবে না।

২২ ফেব্রুয়ারী শনিবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবের এম আব্দুর রহিম মিলনায়তনে বাংলাদশে মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে বৈষম্য নিরসনে দলিত ও আদিবাসী নারীদের ক্ষমতায়ন: টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ১০ (এসডিজি) অর্জনে করনীয়-শীর্ষক মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম।

দিনাজপুর মহিলা পরিষদের সভাপতি কানিজ রহমান এর সভাপতিত্বে সভার শুরুতেই জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি’র দেওয়া লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মহিলা পরিষদের প্রশিক্ষন সম্পাদক রুবি আফরোজ।

মতবিনিময় সভায় মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি রেখা চৌধুরী, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সীমা মোসলেম, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ মোর্শেদ আলী, প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান, আদিবাসী নারী শিউলী বার্ড্য, দলিত নারী বাসন্তী রানী দাস, হরিজন সম্প্রদায়ের রুঙ্গলাল বাসপো।

মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন নাট্য সমিতির সাধারন সম্পাদক রেজাউর রহমান রেজু, সঙ্গীত কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ গনেশ সরেন, হাবিপ্রবির ছাত্র প্রদীপ খালকো, এনজিও কর্মী ফাজিয়া জারিন, অনামিকা পান্ডে প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য