অনেকেরই নখ ভাঙার সমস্যা দেখা দেয়। ফলে চাইলেও নখ বড় রাখতে পারেন না। প্রাকৃতিকভাবে এই সমস্যার সমাধান সম্ভব।

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে নখ শক্ত ও বড় রাখার পন্থা সম্পর্কে জানানো হল।

লেবুর রস

লেবু ভিটামিন সি সমৃদ্ধ যা নখ ও চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। নখে নিয়মিত লেবুর রস ব্যবহারে নখের হলদে দাগ দূর হয়। কারণ এতে আছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান।

করণীয়: প্রতিদিন এক টুকরা লেবু আঙ্গুল ও নখের চারপাশে ঘষতে হবে। পাঁচ মিনিট পরে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

নখ ভেঙে যাওয়ার সমস্যা থাকলে তাতে নিয়মিত লেবুর রস ব্যবহার করুন। এতে নখের সংবেদনশীলতার সমস্যা দূর হবে।

নারিকেল তেল

ভিটামিন ই এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ যা নখ ও চুল আর্দ্র রাখতে সহায়তা করে। নারিকেল তেল হালকা। যা সহজে ত্বকে শোষিত হয়। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বককে ফাঙ্গাস ও ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে।

করণীয়: প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একটা বাটিতে খাঁটি নারিকেল তেল নিয়ে গরম করে নিন। এরপর তা নখ ও আঙ্গুলে গোলাকারভাবে মালিশ করুন। এতে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে ও নখের বৃদ্ধি দ্রুত হবে। তাছাড়া কিউটিকলের কোনো রকম সমস্যা থেকে থাকলে নিয়িমিত নারিকেল তেল ব্যবহার করে তা থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

কমলার রস

কমলা, লেবুর মতোই ভিটামিন সি ও ফলিক অ্যাসিডের ভালো উৎস যা কোষকলা উৎপাদনে সহায়তা করে। নখের বৃদ্ধিতে কোষকলা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কমলার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সাহায্য করে।

করণীয়: দিনে একবার একটা বাটিতে কমলার রস নিয়ে তাতে ১০ মিনিট নখ ডূবিয়ে রাখুন। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

নখ ডোবানোর আগে তা এক্সফলিয়েট করে নিন। এতে ত্বক মসৃণ হয় এবং ‘কিউটিকল’ দূর করা সহজ হয়।

জলপাইয়ের তেল

যদি নখ ভাঙা বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে তাহলে জলপাইয়ের তেল ব্যবহারে উপকার পাওয়া যায়। এই তেল সহজেই ত্বকে শোষিত হয় এবং ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে শুষ্কতা দূর করে। ফলে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে এবং নখ দ্রুত বৃদ্ধি পায়।

করণীয়: দিনে একবার খাঁটি জলপাইয়ের তেল একটা পাত্রে গরম করে কিউটিকলের ওপর পাঁচ মিনিট ধরে মালিশ করুন। এরপর সারা রাত হাত মোজা পরে ঘুমান। সকালে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

সারা রাত জলপাইয়ের তেল রাখতে না চাইলে কুসুম গরম তেলে ১৫ থেকে ২০ মিনিট নখ ডুবিয়ে রাখুন। নখ উজ্জ্বল ও চকচকে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য