নারীর সৌন্দর্য শাড়িতে। আর শাড়ির সঙ্গে টিপ না পরলে সাজটাই যেন অপূর্ণ রয়ে যায়।

টিপ পরলে এমনিতেই দেখতে সুন্দর লাগে। তারপরও খুব বেশি মানানসইয়ের কথা বিবেচনা করলে বেছে নিন নিজের মুখের আকৃতি অনুযায়ী টিপ। পোশাকের রংয়ের সঙ্গে মিলিয়ে টিপ পরা যতটা না জরুরি তার চেয়েও বেশি জরুরি হল মুখের আকারের সঙ্গে টিপের আকারের সামঞ্জস্যতা।

সাজসজ্জা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে মুখের আকার অনুযায়ী টিপ বাছাই করার কয়েকটি পন্থা সম্পর্কে এখানে জানানো হল।

গোলাকৃতি মুখের জন্য: মুখের আকার গোলাকৃতি হলে খানিকটা লম্বাকৃতি টিপ বেছে নিন। এতে মুখের আকার দেখতে সুন্দর লাগে।

চৌকাকৃতি মুখের জন্য: যদি কপাল, গাল এবং থুতনি একই মাপের হয় তাহলে তা চৌকাকৃতির মুখ। এই ধরনের মুখে গোলাকার টিপ বেশ মানিয়ে যায়। যদিও এই ধরনের মুখের আকারে সব আকৃতিক টিপই মানায়। তবে গোল টিপ দেখতে বেশি ভালো লাগে।

ডিম্বাকৃতি মুখ: যাদের মুখ ডিম্বাকৃতি তারা যে কোনো আকারের টিপ পরতে পারেন। সব আকারের টিপ দেখতেই ভালো লাগে ডিম্বাকৃতি মুখে।

প্রকার: কেবল আকার বা রংয়ের পার্থক্য নয় টিপের নকশাতেও থাকে নানান বৈচিত্র্য। বাজারে নানান আকৃতিক টিপের ওপর পাথর, পুঁতি বসানো থাকে। বর্তমানে রং-তুলির নকশা করা বড় টিপ কিনতে পাওয়া যায়। এছাড়াও সৌখিন নারীরা টিপের ওপর স্বর্ণের কাজ করিয়ে পরে থাকেন।

প্রাপ্তিস্থান: প্রায় সব প্রসাধনীর দোকানে টিপ কিনতে পাওয়া যায়। তবে গুণগত মান যেমন- টিপের তন্তু, রংয়ের উজ্জ্বলতা, আঠার স্থায়িত্ব ইত্যাদি বুঝে টিপ কিনতে চাইলে খানিকটা যাচাই করেই টিপ কিনতে হয়।

দরদাম: বাজারে প্রতি প্যাকেট টিপের দাম ১০ টাকা, নকশা কর টিপের পাতা ২০ টাকা থেকে শুরু করে ৩৫০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।

তথ্যঃ বিডিনিউজটয়েন্টিফোর

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য