দিনাজপুর সংবাদাতাঃ শিক্ষকদের চাকুরী রাজস্ব খাতে অর্ন্তভুক্তের এক দফা বাস্তবায়নের দাবীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা কার্য্যক্রমের শিক্ষক/শিক্ষিকা ও কেয়ারটেকারসহ জনবলের কর্মচারীরা।

মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা কার্য্যক্রমের শিক্ষক/শিক্ষিকা ও কেয়ারটেকারসহ অন্যান্য জনবলের কর্মচারীদের রাজস্ব খাতে অর্ন্তভুক্তের এক দফা দাবীতে গতকাল বুধবার সকালে দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এইস এম মাগ্ফুরুল হাসান আব্বাসীর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনার বরাবরে স্মারকলিপির কপি জমা দেন দিনাজপুর মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা কার্য্যক্রম প্রকল্পের শিক্ষক/শিক্ষিকাবৃন্দ।

স্মারকলিপির কপিতে তারা বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান ইসলামিক ফাউন্ডেশন। তার হাত ধরেই ১৯৭৫ সালের ২২ মার্চ এদেশের মানুষের ইসলামি ধ্যান জ্ঞান ও কল্যানে গড়ে তোলা হয়েছিল ইসলামিক ফাউন্ডেশন। তারই ধারাবাহিকতায় জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতাসীণ হওয়ার পর ইসলামিক ফাউন্ডেশসের অধিনে বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কর্মকান্ডের সুচনা করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩১/১২/২০১৯ হতে ৫ বছর মেয়াদী ৬ষ্ঠ পর্যায়ে ধর্ম মন্ত্রনালয়ের অধিনে দেশে মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা কার্য্যক্রম সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে আসছে। তাই মুজিব জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপহার হিসেবে চাই চাকুরীটি রাজস্ব খাতে অর্ন্তভুক্ত করে দিন।

এই প্রকল্পে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ২২৭টি কেন্দ্রের নিয়োগকৃত ২২৭জন শিক্ষক মসজিদের ইমামগন(প্রাক-প্রাথমিক ও সহজ কুরআন শিক্ষাসহ) মসজিদ কেন্দ্রের শিশু ও বয়স্ক শিক্ষার্থীদের বাংলা,গণিত,ইংরেজি,আরবি ও নৈতিক মুল্যবোধসহ বিভিন্ন বিষয়ে সুনামের সাথে যতœ সহকারে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করে আসছে।

সরকারী স্বল্পতম সন্মানী ভাতায় শিক্ষাদানকারী এই শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসলেও তারা এখনো রাজস্ব খাতে অর্ন্তভুক্ত হতে না পেরে অনেকেই অসহায় অবস্থায় দিনাতিপাত করছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাদের দাবী এইখাতে নিয়োগকৃত সবাইকে রাজস্ব খাতে অর্ন্তভুক্ত করে সচ্ছলভাবে জীবনযাপনের অধিকার দেয়ার।

স্মারকরিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মাও: সাখাওয়াত হোসেন,সা:সম্পাদক মাও: মো: সাহিনুর রহমান,সাংগঠনিক সম্পাদক মাও: মাহফুজুর রহমান,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মাকসুরাতুন জান্নাত,সদস্য নাসিমা আক্তার,মাও: গোলাম রাব্বানী ও মাও: সাইদুর রহমান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য