দিনাজপুর সংবাদাতাঃ উইকমিডিয়ানস অব সাঁওতালি ল্যাংগুয়েজ ইউজার গ্রুপ এর আয়োজনে গতকাল সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সাঁওতালি উইকিপিডিয়ার দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এই কর্মশালায় উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি ক্রিস্টেল, দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, ডেইলি স্টারের সাংবাদিক কঙ্কন কর্মকার, উইকমিডিয়ানস অব সাঁওতালি ল্যাংগুয়েজ ইউজার গ্রুপ এর বাংলাদেশ কোঅর্ডিনেটর ও সাঁওতালি উইকিপিডিয়ার প্রশাসক মানিক সরেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এই কর্মশালায় ২০জন সাঁওতাল প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালায় বক্তারা ইন্টারনেটে সাঁওতালি ভাষার বিষয়বস্তু বা কনটেন্ট সমৃদ্ধ করার তাগিদে সাঁওতালি উইকিপিডিয়া সমৃদ্ধ করার আহ্বান জানান।

উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি ক্রিস্টেল স্টেইজেনবার্গার বলেন, আমি খুব আনন্দিত সাঁওতালি উইকিপিডিয়ানদের সাথে সাঁওতালি উইকিপিডিয়া বিষয়ে কর্মশালায় যোগ দিতে পেরে। তিনি আরো বলেন, উইকিপিডিয়া বিশ্বের সকল ভাষাকে বিকাশের একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করছে। সাঁওতালি ভাষা কমিউনিটির মতো বিশ্বের অন্যান্য আদিবাসী ভাষার কমিউনিটিরা চাইলে উইকিপিডিয়াকে তাদের ভাষা বিকাশের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল বলেন, ভাষার মাসে দেশের আদিবাসী ভাষাগুলোর বিকাশের জন্য আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে। বাঙ্গালি হিসেবে আমাদের উচিত দেশের আদিবাসী মানুষদের সাহায্য করা।

উইকমিডিয়ানস অব সাঁওতালি ল্যাংগুয়েজ ইউজার গ্রুপ এর বাংলাদেশ কোঅর্ডিনেটর এবং সাঁওতালি উইকিপিডিয়ার প্রশাসক মানিক সরেন বলেন, ‘বর্তমানে সাঁওতালি ভাষার এই উন্মুক্ত বিশ্বকোষে দুই হাজারের অধিক নিবন্ধ যুক্ত হয়েছে।

যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন বিষয়ের পাশাপাশি স্থান পেয়েছে সাঁওতাল সমাজ, সস্কৃতির নানা বিষয়। সাঁওতালি উইকিপিডিয়ায় সাঁওতাল পন্ডিত রঘুনাথ মুরমুর আবিষ্কৃত ‘অলচিকি’ লিপি ব্যবহার করা হয়েছে। সাঁওতালি ভাষায় এই উইকিপিডিয়াটি সমৃদ্ধ করতে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের সাঁওতালরা যৌথভাবে কাজ করেছেন।’

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ২রা আগস্ট সাঁওতালি উইকিপিডিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। বাংলাদেশে বাংলা ও বিষ্ণুপ্রিয়া মনিপুরী ভাষার পরে সাঁওতালি ভাষায় উইকিপিডিয়া চালু রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য