যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এই প্রথম দুইদিনের সফরে ভারতে যাচ্ছেন।‘ফার্স্ট লেডি’ মেলানিয়াকে নিয়ে তিনি দিল্লিতে পৌঁছবেন ২৪ ফেব্রুয়ারি। পরদিন যাবেন আহমেদাবাদে।

হোয়াইট হাউজ মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ সফর-সূচি ঘোষণা করেছে মঙ্গলবার। তার এ সফর ভারত-মার্কিন কৌশলগত অংশীদারিত্ব আরও জোরদার করবে বলেই হোয়াইট হাউজ মনে করছে।

এনডিটিভি জানায়, হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি স্টেফানি গ্রিশাম বলেছেন, এ সফর ঘিরে গত সপ্তাহের শেষ দিকে টেলিফোনে কথা হয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। এই সফর ভারত ও আমেরিকার প্রতিরক্ষা সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করবে। আরও কাছাকাছি আনবে দু’দেশের নাগরিকদের। সে ব্যাপারে মোদী ও ট্রাম্প অঙ্গীকারাবদ্ধ হয়েছেন।

হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি দিল্লি ও আহমেদাবাদ সফর করবেন। কারণ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাটের শহর আহমেদাবাদ এবং মহাত্মা গান্ধীর জীবনে ও ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে এ শহরের বিশেষ অবদান রয়েছে।”

ট্রাম্পের আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন বারাক ওবামা ২০১০ সালে এবং পরে আবার ২০১৫ সালে ভারত সফরে এসেছিলেন।

আহমেদাবাদে ট্রাম্পকে সংবর্ধনা জানানোর জন্য ‘কেম চো ট্রাম্প’ নামে একটি সমাবেশের আয়োজন করা হবে। গুজরাতি ভাষার ‘কেম চো’ শব্দটিকে ইংরেজিতে বলা হয় ‘হাউডি’। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সংবর্ধনা জানাতে একইরকম ভাবে ‘হাউডি মোদী’ নামে একটি সমাবেশের আয়োজন করেছিল ট্রাম্প প্রশাসন।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এবারের এ ভারত সফরের মূল উদ্দেশ্য বাণিজ্য চুক্তি হলেও দু’দেশের সর্বোচ্চ নেতৃত্বের মধ্যে সন্ত্রাসবাদ রোধে একসঙ্গে পদক্ষেপ নেওয়াসহ আরও নানা বিষয়েও আলোচনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য