আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাটঃ করোনা ভাইরাস সন্দেহে চীন ফেরত লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার আল আমিন (২২) নামে এক শিক্ষার্থীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ওই শিক্ষার্থীকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতে পাঠানো হয়েছে।

এ হাসপাতালে ভর্তি চীনফেরত দ্বিতীয় এ ব্যক্তিকে ঢাকায় পাঠানোর খবরের মধ্যে সোমবার আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

রাজধানীর মহাখালীর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, চীনফেরত ওই শিক্ষার্থীর শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ নেই।

লালমনিরহাটের চীনফেরত আরেকজনকে রংপুর থেকে পাঠানো হচ্ছে ঢাকায় -Dinajpur, Dinajpur news, দিনাজপুর, দিনাজপুর নিউজ, বাংলা, বাংলানিউজ bangle, banglanews, Rangpur District, Kurigram District, Panchagarh District, Nilphamari District, Gaibandha District, Thakurgaon District, Lalmonirhat District, রংপুর জেলা, কুড়িগ্রাম জেলা, পঞ্চগড় জেলা, নীলফামারী জেলা, গাইবান্ধা জেলা, ঠাকুরগাঁও জেলা, লালমনিরহাট জেলা Bangladesh, বাংলাদেশ I+“তার কিডনির সমস্যা আছে। যেহেতু সে চীনফেরত, সে কারণে বাড়তি সতর্কতা হিসেবে তাকে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।”

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চলবালা ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামের ৩০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি রোববার সকালে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে চীন থেকে বাংলাদেশে আসেন।

‘শ্বাসকষ্ট ও বমি’ হওয়ায় তাকে রাত সাড়ে ১০টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

লালমনিরহাটের চীনফেরত আরেকজনকে রংপুর থেকে পাঠানো হচ্ছে ঢাকায় -Dinajpur, Dinajpur news, দিনাজপুর, দিনাজপুর নিউজ, বাংলা, বাংলানিউজ bangle, banglanews, Rangpur District, Kurigram District, Panchagarh District, Nilphamari District, Gaibandha District, Thakurgaon District, Lalmonirhat District, রংপুর জেলা, কুড়িগ্রাম জেলা, পঞ্চগড় জেলা, নীলফামারী জেলা, গাইবান্ধা জেলা, ঠাকুরগাঁও জেলা, লালমনিরহাট জেলা Bangladesh, বাংলাদেশ I+হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নরায়ণ চন্দ্র সাংবাদিকদের বলেন, চীনফেরত ওই শিক্ষার্থীকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

এর আগে শনিবার সকালে চীনফেরত আরেক যুবক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। তবে তার শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ নেই বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট (আইইডিসিআর)।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য