দিনাজপুর সংবাদাতাঃ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) সহকারী প্রক্টর হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্স অনুষদের জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড.মো. রাশেদুল ইসলাম। মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) এক অফিস আদেশে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আদেশে বলা হয়, জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড.মো. রাশেদুল ইসলাম কে তার নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে সহকারী প্রক্টরের দায়িত্ব প্রদান করা হলো। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্ব পালন করবেন। দায়িত্বে থাকা কালীন তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিধি-বিধান মেনে চলতে বাধ্য থাকবেন এবং বিধি মোতাবেক প্রদেয় ভাতা ও সুযোগ সুবিধা প্রাপ্ত হবেন। এর আগে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হলের সহকারী হল সুপার, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের সহকারী পরিচালক,শিক্ষক-কর্মকর্তা ক্লাবের কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেছেন এবং বর্তমানের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী গনতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের প্রচার সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন।

সহযোগী অধ্যাপক ড.মো. রাশেদুল ইসলাম বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,ময়মনসিংহ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর ২০১০ সালে তিনি দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক্স এন্ড এনিমেল ব্রিডিং বিভাগের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি ব্রিটিশ সরকার প্রদত্ত কমনওয়েলথ স্কলারশিপ পেয়ে যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অফ দি ওয়েস্ট অফ স্কটল্যান্ড হতে বায়োটেকনোলজিতে স্নাতকোত্তর করেন।

স্নাতকোত্তর অধ্যায়কালীন তিনি চোখের বন্ধাত্বে পরজীবির প্রভাব নিয়ে গবেষণা করেন। এরপর জাপান সরকার প্রদত্ত মনবুশো স্কলারশিপ পেয়ে জাপানের কিউশু ইউনিভার্সিটি হতে প্রানীতে এমব্রায়ো ইমপ্লান্টেশন(গর্ভধারণ কালীন)এর ইন ভিট্রো মডেলের ওপর গবেষণার মাধ্যমে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন । ২০১৬ সালে তিনি জাপানে অনুষ্ঠিত এশিয়ান অস্ট্রেলেশিয়ান এনিম্যাল প্রোডাকশন সোসাইটি কর্তৃক ইয়ং সায়েন্টিস্ট অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন ।

সম্প্রতি তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অফ কানসাস মেডিকেল সেন্টারে মহিলাদের গর্ভধারণে আর্সেনিক এর প্রভাব নিরুপণে হিউমান ট্রফোব্লাস্ট স্টেম সেল নিয়ে পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা করেন। এখন পর্যন্ত দেশীয় ও আন্তজার্তিক জার্নালে তার ২৩ টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশ,জাপান,কোরিয়া,ইন্দোনেশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সায়েন্টিফিক মিটিং-এ তিনি ২২ টি গবেষণা ফলাফল উপস্থাপন করেছেন। বর্তমানে তিনি কমনওয়েলথ স্কলারশিপ কমিশন অ্যালুমিনি অ্যাডভাইসারি প্যানেলের একজন সদস্য হিসেবে রয়েছেন ।

দায়িত্ব পাওয়ার বিষয়ে ড.মো, রাশেদুল ইসলাম জানান, উপাচার্য মহোদয় আমাকে যোগ্য মনে করে যে বিশ্বাস ও আস্থা থেকে এই দায়িত্ব দিয়েছেন তা যেন যথাযথভাবে পালন করতে পারি সে জন্য সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি। এই বিশ্ববিদ্যালয় আমাদের সকলের তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি এবং সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখাও আমাদের সকলের দায়িত্ব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য