দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ডিবি পুলিশ, পুলিশের এসপি, ডিআইজি ও সচিব পরিচয় পরিচয় প্রদানকারী দলের প্রধানসহ ৬ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে দিনাজপুরের গোয়েন্দা(ডিবি) পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলঅর পূর্ব দলিরাম গ্রামের বসির উদ্দিনের প্রতারক চক্রের প্রধান নুর আলম ওরফে রিপন, উপশহর ২ নং ব্লকের ভাড়াটিয়া ঠাকুরগাও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার মাধবপুর গ্রামের সুব্রত বিহারী রায় ওরফে মোঃ শুভ আহম্মেদের স্ত্রী মোছাঃ শাকিলার আক্তার বন্যা ওরফে কাজলী ওরফে কাজল, দিনাজপুর শহরের সুইহারী মহল্লার মনসুর আলীল ছেলে মোঃ শাহিন পারভেজ, ঠাকুরগাও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার মাধবপুর গ্রামের মৃত বিপিন বিহারী রায়ের ছেলে সুব্রত বিহারী রায় ওরফে মোঃ শুভ আহম্মেদ দিনাজপুর শহরের গোলাপবাগ রামনগর মহল্লার মোঃ মালেকেরে মেয়ে রুনা বেগম ওরফে চাঁদনী ও পীরজাবাদ সরকার পাড়া গ্রামের সাইদুর রহমানের স্ত্রী আনজুমান আকতার ওরফে শিউলী।

সোমবার ( ৩ জানুয়ারী) তাদেরকে দিনাজপুর শহরের সুইহারী এলাকায় একটি বাড়ী থেকে গ্রেফতার করা হয়।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন এসপি অফিসের কনফারেন্স রুমে প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেফতারকৃতরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। জনৈক আরশী আক্তারকে রংপুর ডিআইজি অফিসে চাকুরীর নিয়োগপত্র প্রদান করে। কিন্তু গত সোমাবার রাতে সুইহারীতে প্রতারক শাহিন পারভেজের বাড়ীতে আরশী আক্তারকে রংপুর ডিআইজি অফিসে চাকুরী না দিয়ে রংপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অফিস সহকারী পদে চাকুরীর ভূয়া নিয়োপত্র প্রদানের সময় গ্রেফতার করা হয়। তারা আন্তঃ জেলা প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধীক মামলা রয়েছে। পুলিশ সুপার জানান, এই প্রতারক চক্রের সঙ্গে কতিপয় সরকারী কর্মকর্তা জড়িত রয়েছে। তদন্ত করে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে।

ডিবি পুলিশের ওসি মোঃ গোলাম রসুল গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বুধবার বিকালে কোর্টে চালান দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য