দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বীরগঞ্জের মোহনপুর ইউনিয়নের চিলকুরা নামক এলাকায় সরকারী খাস জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন ও বিক্রির অপরাধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে একজনকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদ- এবং আরেকজনকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

গতকাল উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের চিলকুরা নামক স্থানে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রমিজ আলম কর্তৃক মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে নদী তীরস্থ সরকারী খাস জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন ও বিক্রয়কালে অত্র এলাকার মৃতঃ সাহেব আলীর পুত্র মোঃ রুহুল আমিন (৬০) এবং মৃত আব্বাস আলীর পুত্র মোঃ নওশের আলী ওরফে গেঁদা (৬২) কে আটক করা হয়। আটককৃত মোঃ রুহুল আমিন তাঁর দোষ স্বীকার করায় বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০ অনুযায়ী ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করা হয় এবং মোঃ নওশের আলীকে ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ০৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- প্রদান করা হয়।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রমিজ আলম জানান, ঘটনাস্থলের পাশেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারভূক্ত গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প রয়েছে। তাছাড়া, পাশেই আবাসিক এলাকা এবং বৈদ্যুতিক লাইন রয়েছে। অধিকন্তু, জায়গাটি সরকারি খাস জমি এবং নদী তীরবর্তী হওয়ায় এখান থেকে মাটি উত্তোলন বা অপসারণ ক্ষতিকর।উক্ত জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি অপসারণের ফলে গুচ্ছগ্রাম ও বিদ্যুৎ লাইন ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সরকারী জমিসহ যে কোন জমি থেকে অবৈধভাবে মাটি বা বালু উত্তোলন ও অপসারণ দন্ডনীয় অপরাধ।

পরিবেশ সুরক্ষায় অবৈধভাবে মাটি বা বালু উত্তোলনে অভিযান অব্যাহত থাকবে মর্মেও জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রমিজ আলম। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে সহযোগিতা করেন বীরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক মোঃ বেলাল হোসেন এবং মোহনপুর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ আবদুর রশিদ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য