কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলার বালিয়ামারী ও ভারতের কালাইয়ের চর বর্ডার হাটটি করোনা ভাইরাস ঝুঁকিতে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই হাট দিয়ে ভারতের আসাম ও গাড়ো হিলের অসংখ্য মানুষ পণ্য আমদানি-রপ্তানির কাজে আসা এবং বিভিন্ন জাতের ফল থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছ।

দেশের অন্যান্য স্থল বন্দর বা বর্ডার হাট গুলোতে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে বিশেষ স্বাস্থ্য ক্যাম্প স্থাপন বা সচেতনামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলেও বালিয়ামারী বর্ডার হাটে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ফলে বালিয়ামারী বর্ডার হাটটি করোনা ভাইরাস ঝুঁকিতে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বালিয়ামারী বর্ডার হাট এর কাষ্টম ইনেন্সপেক্টর মনজুরুল ইসলাম জানান,বালিয়ামারী ও কালাইয়ের চর বর্ডার হাটে এখন পর্যন্ত স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে করোনা ভাইরাস সনাক্ত বা সচেতনতার জন্য কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। কয়েক দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে চর রাজিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডাক্তার দেলোয়ার এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, যেহেতু ভারতের অসংখ্য মানুষ ও বিভিন্ন মালামাল ও বিভিন্ন রকমের ফল ও মসলা আমদানি -রপ্তানি করা হয়।

এ কারণে হাটে আসা মানুষের মাঝ থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করা যায়। তিনি আরও জানান,আমি গত মাসিক সভায় আলোচনা করেছি। করোনা ভাইরাস ছড়ানোর আশংকায় বর্ডার হাট বন্ধ করা আশু প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে বর্ডার হাটের দায়িত্ব প্রাপ্ত চর রাজিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মেহেদী হাসান জানান, আমরা স্থানীয় ভাবে মিটিং করে হাটটি আপাতত বন্ধের জন্য জেলা প্রশাসককে জানিয়েছি। সেখান থেকে উত্তর পেলে ব্যবস্থা নিব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য