দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ঘোড়াঘাট পৌরসভার প্রানকেন্দ্রে উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রটির বেহাল দশা। স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির দৃশ্যমান কোন সাইন বোর্ড নেই।

স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির নিজস্ব সাইনবোর্ড না থাকলেও সামনে একাধিক প্রতিষ্ঠানের সাইন বোর্ড শোভা পাচ্ছে। রোগী থেকে সাধারন জনগন গোলক ধাঁধাঁয় পড়ে যায়।

শুধু পরিচিতি জনেরাই জানে এটি একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্র নতুন প্রজন্ম এবং বহিরাগত ও অপরিচিতজনেরা জিঙ্গাসা করে প্রাচীর ঘেরা ঘরে কি হয়। এমন প্রশ্ন অহরহ শোনা যায়।

এ ছাড়াও স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি এখন নিজেই অসুস্থ হয়ে পড়েছে, সঠিকভাবে রক্ষনাবেক্ষনের অভাবে। প্রবেশ মুখেই পৌরসভার ডাষ্টবিন,যা থেকে ময়লা ও দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।

এ ছাড়াও চতুর্দিকে ময়লা আবর্জনা যত-তত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। অন্য দিকে ১৫ থেকে ২০ তারিখের মধ্যেই ্ওষুধ শেষ হয়ে যায় ঔষুধের এমন স্বল্পতার অভিযোগ সব সময় পাওয়া যায়।

২০০৫সালে ঘোড়াঘাট পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির সামান্য কিছু উন্নয়ন হলেও এখনও হযরলব অবস্থ্যা।

ডাঃ বলতে একজন সহকারী মেডিকেল কর্মকর্তা ও একজন ফার্মাসিষ্ট। নাগরিক সেবার জন্য কোন মেডিকেল (এমবিবিএস)অফিসার সহ চতুর্থ শ্রেনীর কোন কর্মচারী নেই।

যে কারণে পৌরসভার প্রানকেন্দ্রে স্বাস্থ্যকেন্দ্রটির অবস্থান হলেও এখান থেকে কাক্ষিত স্বাস্থ্যসেবা থেকে জনসাধারন বঞ্চিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য