দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক শুভ্র চন্দ্র দাসের বাড়িতে অনশনকারী রংপুর মহানগরীর মাষ্টার্স ডিগ্রি পাশ প্রেমিকা (২৬)’র বিয়ের দাবীর স্বীকৃতি মিলেছে। অবশেষে তাদের পারিবারিকভাবে বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামি ২ মাস পরেই হবে প্রেমিক-প্রেমিকার বিয়ের অনুষ্ঠান।

উপজেলার আলোকডিহি ইউনিয়নের গছাহার গ্রামের ক্ষেণপাড়ার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সুকুমার চন্দ্র দাসের ছেলে প্রেমিক শুভ্র চন্দ্র দাসের বাড়িতে গত ৩০ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাত থেকে অনশন করছিল ওই প্রেমিকা। গতকাল সকালে এ অনশনের ঘটনাটি এলাকায় ফাঁস হয়।

ওই রাতেই প্রেমিক-প্রেমিকার পরিবারের লোকজন প্রেমিক শুভ্রর বাড়িতে এক বৈঠকে মিলিত হয়। বৈঠকে উভয় পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিল। মেয়ের মামা চিত্তরঞ্জন সরকার জানান, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় আগামি ২ মাসের মধ্যে তাদের পারিবারিকভাবে ধূমধামে বিয়ে দেওয়া হবে। আগামি ৫ ফেব্রুয়ারি কোর্টে তাদের বিয়ে রেজিষ্ট্রি করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, ২০০৮ সাল থেকে প্রেমিক শুভ্র চন্দ্র দাসের ও প্রেমিকার প্রেমের সম্পর্ক শুরু হয়। দীর্ঘদিন ধরে চলে তাদের প্রেমের সম্পর্ক। একপর্যায়ে প্রেমিকা তার প্রেমিক শুভ্রকে বিয়ের চাপ দিলে প্রেমিক নানা তালবাহানা করে সময় ক্ষেপন করতে থাকে। বন্ধ করে দিয়েছিল যোগাযোগও।

পারিবারিকভাবেও বিয়ের প্রস্তাব দিলেও বিভিন্ন কারণে তা ভেস্তে গিয়েছিল। নিরুপায় হয়ে প্রেমিকা গত ৩০ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার রাত থেকে প্রেমিক শুভ্রর বাড়িতে এসে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য