চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্রস্থল উহান ছাড়তে শুরু করেছেন বিদেশি নাগরিকরা। ফিরছেন অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকরাও। তাদের একটি দ্বীপে আলাদা করে রাখার পরিকল্পনা জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেছেন, চীনের উহান ও হুবেই প্রদেশের আশপাশের এলাকা থেকে অস্ট্রেলিয়ায় ফেরত আনা হচ্ছে প্রায় ৬০০ নাগরিককে। ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে তাদের দুই সপ্তাহ ক্রিসমাস দ্বীপে আলাদা করে রাখা হবে।

করোনা ভাইরাসে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭০ জনে দাঁড়িয়েছে।এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৭,৭৭১ জন । চীন সরকারের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, হুবেই প্রদেশেই নতুন করে ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ওই প্রদেশেই নতুন করে আরো ১ হাজার ৩২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত বিশ্বের প্রায় ১৮ টি দেশে ছড়িয়েছে চীনের এই করোনা ভাইরাস। বুধবার আরব আমিরাত এবং ফিনল্যান্ড করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

এদিকে চীন সরকারের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবির প্রতিবেদনে বলা হয়, পুরো চীনে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস ।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য