প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে চীনের সঙ্গে আপাতত আকাশ পথের যোগাযোগ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাজ্যের পতাকাবাহী বিমান সংস্থা ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ। বিবিসির অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, পরবর্তী নির্দেশনার আগ পর্যন্ত চীন থেকে অন্য কোথাও কিংবা অন্য কোনও দেশ থেকে চীনে ওই সংস্থার কোনও বিমান চলাচল করবে না। এর আগে চীন ভ্রমণে সতর্কতাও জারি করে ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দফতর।

চীনে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। আর আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৯৭৪। হুবেই ছাড়াও রাজধানী বেইজিংসহ ২৯টি প্রদেশে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়া জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম, তাইওয়ান, নেপাল, ফ্রান্স, সৌদি আরব, কানাডাসহ অন্তত ১৬টি দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিলেছে।

হুবেই থেকে শত শত বিদেশি নাগরিকদের তাদের দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ব্রিটিশ সরকার সেখান থেকে ৩০০ জন নাগরিককে দেশে ফেরাতে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে।

প্রতিদিনই যুক্তরাজ্যের হিথরো থেকে সাংহাই ও বেইজিংয়ে ফ্লাইট থাকে ব্রিটিশ এয়ারওেয়েজের। তবে এই পরিস্থিতিতে চীনের সঙ্গে সব ধরনের ফ্লাইট তাৎক্ষণিক বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, আমরা আমাদের ক্রেতাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। তবে তাদের নিরাপত্তাই আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

প্রসঙ্গত এরআগে ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স, এয়ার কানাডা ও কাথায় প্যাসিফিক এয়ারওয়েজের মতো অন্যান্য সংস্থাগুলোও চীনের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য