দিনাজপুর সংবাদাতাঃ তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির দিনাজপুর জেলা শাখার বর্ধিত সভা আজ ২৫ জানুয়ারি সকাল ১১ টায় দিনাজপুর নাট্য সমিতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির দিনাজপুর জেলা আহবায়ক মোহাম্মদ আলতাফ হোসাইনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, সদস্য মিজানুর রহমান, এস.এম খালেক, জেলা কমিটির সদস্য আখতার আজিজ, সারোয়ারুল হাসান ক্লিপটন, শহীদুল ইসলাম, ফুলবাড়ী উপজেলার আহবায়ক জুয়েল ইসলামসহ জেলা ও উপজেলা নেতৃবৃন্দ।

সভায় সরকারের ব্যয়বহুল ও ঋননির্ভর ও পরিবেশ বিধ্বংসী বিদ্যুৎ মহাপরিকল্পনার বিপরীতে জাতীয় কমিটির সামগ্রিক পরিকল্পনা বিস্তারিত আলোচনা হয়।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদনের সরকারি মহাপরিকল্পনা অনুযায়ী বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে মূলত পরিবেশবিধ্বংসী কয়লা, ভয়ানক বিপজ্জনক পারমানবিক শক্তি ও আমদানীকৃত এলএনজির মাধ্যমে যেগুলো একাধারে ব্যয়বহুলও বটে। যার ফলে প্রতিবছর বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হবে।

এর বিপরীতে জাতীয় কমিটির প্রস্তাবনায় তিনি তুলে ধরেন, যেখানে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে মূলত দেশের মজুদ প্রাকৃতিক গ্যাস ও নবায়নযোগ্য শক্তি থেকে। বিদ্যুতের দাম বাড়ার বদলে কমতে থাকবে।

পরিবেশ ও জনগনের নিরাপত্তাকে হুমকিতে না ফেলেই বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে জনগনের স্বার্থ রক্ষা করে। সভায় অবিলম্বে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে এশিয়া এনার্জির অপতৎপরতা বন্ধ, সন্ত্রাসীদের মদদ দান, চীনের সঙ্গে অবৈধ চুক্তি বাতিল, জাতীয় কমিটির ফুলবাড়ীর নেতাদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য সরকারের নিকট দাবি জানানো হয়।

অন্যথায় ২৬ মার্চের পর ফুলবাড়ী থেকে দিনাজপুর পর্যন্ত লংমার্চসহ বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

সভায় মোহাম্মদ আলতাফ হোসাইনকে আহবায়ক ও এ.এস.এম মনিরুজ্জামান কে সদস্য সচিব করে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট পুনর্গঠিত জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য