গায়ের রংকে দুভাগে ভাগ করা যায়- শীতল আর উষ্ণ। এই ধরন অনুযায়ী লিপস্টিক ব্যবহার করলে দেখতেও ভালো লাগে।

সাজসজ্জা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে ত্বকের ধরন যাচাই ও সে অনুযায়ী লিপস্টিক নির্বাচনের উপায় সম্পর্কে জানানো হল।

শীতল বর্ণ: যারা শীতল বর্ণে অধিকারী তাদের লাল, গোলাপি বা নীলচে ধরনের লিপস্টিক নির্বাচন করুন। ত্বকের শীতল বর্ণ যাচাই করার জন্য রুপার গহনা পরে দেখুন। যদি তা সোনালি গহনার চেয়ে দেখতে ভালো লাগে অথবা হাতের কবজির ধমনী রং যদি নীলচে দেখায় তাহলে বুঝতে হবে আপনি শীতল টোনের অধিকারী।

সেক্ষেত্রে নীলচে বা বেগুনিধর্মী লিপস্টিক বেছে নেওয়া ভালো। ত্বকের সঙ্গে মানানসই লাল লিপস্টিক বাছাই করতে কমলা বা কমলাটে লাল রং এড়িয়ে চলুন বরং গাঢ় রং বাছাই করুন। হাল্কা রংয়ের লিপস্টিক এড়িয়ে চলুন, নাহলে দেখতে নির্জীব লাগবে।

উষ্ণ চাপা-বর্ণ: গায়ের রং সোনালি, জলপাই ধর্মী হওয়া মানে হল উষ্ণ চাপা-বর্ণের অধিকারী। যদি সোনালি গহনা মানিয়ে যায় এবং ধমনীর রং সবুজাভ হয়ে থাকে তাহলে আপনি এই বর্ণের অধিকারী। উষ্ণ রং যেমন- লাল, কমলাটে লাল ইত্যাদি রং বাছাই করতে পারেন। উজ্জ্বল রং এই ধরনের ত্বকে সঙ্গে ভালো মানিয়ে যায়। তাই যে কোনো উজ্জ্বল রং নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন।

স্বাভাবিক রং: যাদের রূপালি ও সোনালি দুই রংয়ের গহনাতেই মানিয়ে যায় তারা যে কোনো রংয়ের লিপস্টিক নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন। তবে ‘ওয়াইন’ শেইডের লিপস্টিক দেখতে বেশি ভালো লাগে।

আসল কথা হল

গায়ের রংয়ের সঙ্গে মানানসই লিপস্টিক ব্যবহার করতে দেখতে ভালো লাগে। যদি, গায়ের রং ফর্সা হয় তাহলে গাঢ় রংয়ের লিপস্টিক বেছে নিন। জলপাই বা সোনালিধর্মী গায়ের রং হলে উজ্জ্বল রংয়ের লিপস্টিক বেছে নিন। আর গায়ের রং খানিকটা শ্যামলা হলে বেরি ও গাঢ় রংয়ের লিপস্টিক ব্যবহারে দেখতে ভালো লাগবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য