আসন্ন রমযান মাসে তেল-চিনির সংকট হওয়ার শঙ্কা নেই জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, গত রমজানে টিসিবিতে (ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ) তেলের মজুদ ছিল তিনহাজার মেট্রিক টন। এবার আমরা তার চেয়ে প্রায় ২০ গুণ বেশি অর্থাৎ ৫০ হাজার টনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি।

তিনি বলেন, আমাদের যে পরিমাণ চিনি আছে, তাতে রমজানে ঘাটতি হবে ন। ওই সময় নতুন পেঁয়াজও উঠে যাবে, আবার আমদানিও করা হবে। সব মিলিয়ে রমজানে এসব পণ্যের সংকট হবে না বলে আশা করছি।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে রংপুরের সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

ভারতের পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ও সীমান্ত হত্যা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ভারতে পেঁয়াজের দাম আমাদের দেশের চেয়ে বেশি উঠেছিল। তাই তারা পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করেছিল। এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু বিষয়টি আমাদের আগে থেকে জানানো উচিত ছিল।

ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের বিষয়টি আমাদের জন্য বড় শিক্ষা। দেশজ উৎপাদন বৃদ্ধির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কৃষকরা যাতে দাম পান, সে চেষ্টা করব। এনিয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ও কাজ করছে। আর সীমান্তের ঘটনাগুলো মাঝেমধ্যে ঘটছে। সমস্যা সমাধানে উভয়পক্ষের মধ্যে আলোচনা হচ্ছে। এসব বিষয় বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার বাণিজ্যিক সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না।

প্রতিবেশী দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের বড় বাণিজ্য ঘাটতি থাকার কথা স্বীকার করে মন্ত্রী বলেন, ভারতের বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা চলছে। বিভিন্ন খাতে অগ্রগতি হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য