কেরালা, পাঞ্জাবের পর ভারতের তৃতীয় রাজ্য হিসেবে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাখ্যান করে আনা প্রস্তাবে সায় দিল রাজস্থানের বিধানসভা।

শনিবার উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যটির বিধানসভায় বিলটি পাস হওয়ার পর ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাংসদরা তার প্রতিবাদে বিক্ষোভও দেখায় বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

এসময় বিজেপি বিধায়করা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) পক্ষে স্লোগানও দেন।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে আফগানিস্তান, পাকিস্তান, বাংলাদেশ থেকে ২০১৫ সালের আগে ভারতে আশ্রয় নেওয়া অ-মুসলিম শরণার্থীদেরই নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

আইনটিকে বৈষম্যমূলক অ্যাখ্যা দিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই ভারতজুড়ে তুমুল বিক্ষোভ চলছে। কংগ্রেসসহ বেশিরভাগ বিরোধীদলই আইনটির বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে।

সিএএ’র বিরুদ্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে শতাধিক আবেদনও জমা পড়েছে। সর্বশেষ শুনানিতে সর্বোচ্চ আদালত আইনটির ওপর স্থগিতাদেশ না দিয়ে ৪ সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের জবাব তলব করেছে।

বামশাসিত কেরালার পার্লামেন্টে গত মাসে প্রথম সিএএবিরোধী বিল পাস হয়। বিজেপির এক সাংসদ বাদে পার্লামেন্টের সব রাজনৈতিক দলই প্রস্তাবটির পক্ষে অবস্থান নেন।

পরে কংগ্রেসশাসিত পাঞ্জাবও কেরালার পথে হাঁটে। সোমবার পশ্চিমবঙ্গে ডাকা বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনেও সিএএবিরোধী প্রস্তাব উত্থাপন করা হতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় শুরু থেকেই সংশোধিত এ নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে আসছেন। রাজ্যটির বিরোধী কংগ্রেস-সিপিএমও এই ইস্যুতে একাট্টা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য