রংপুরের মিঠাপুকুরে এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী এক যুবকের বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার চেংমারী ইউনিয়নের তীলকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে ওয়ানস্পট ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) স্থানান্তর করা হয়।

ওই কলেজছাত্রীর স্বজনরা জানান, মিঠাপুকুর উপজেলার একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির ওই ছাত্রী বুধবার রাতে তিলকপাড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে পড়াশোনা করছিলেন। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে একই গ্রামের ফুলু মিয়ার ছেলে জাকির হোসেন ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। এতে মেয়েটি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে রাতেই তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শ্যামলী জানান, মেয়েটির প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে ওয়ানস্পট ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) স্থানান্তর করা হয়েছে।

মেয়েটির বাবা জানান, তিনি ছোট একটি দোকান করে কোন রকম সংসার চালানোর পাশাপাশি মেয়েকে লেখাপড়া করাচ্ছেন। বুধবার রাতে তার মা পাশের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যাওয়ার সুযোগে জাকির নামে এক যুবক মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। তিনি এর বিচার দাবি করেন।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, মেয়েটিকে বুধবার রাত ১০টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা গুরুতর ছিল। তাকে তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তাকে হাসপাতালের ওসিসিতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

মিঠাপুকুর থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাবিবুর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি শোনার পর হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। ঘটনার বিষয়ে তদন্ত চলছে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য