রংপুরের কাউনিয়ায় দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রকে চার যুবক মিলে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কাউনিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ওই ছাত্রের পরিবার। মামলায় অভিযুক্ত চার যুবককে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অভিযুক্ত আসামিরা হলেন, উপজেলার শহীদবাগ ইউনিয়নের সাধু দোলাপাড়া গ্রামের মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে উজ্জল মিয়া (২৪), একই গ্রামের শাহানুরের ছেলে মিলন মিয়া (২০), হাসেন আলীর ছেলে পারভেজ (২০) ও একই গ্রামের মোখলেছুর রহমান (২১)।

ভুক্তভোগী ছাত্রের পরিবারের অভিযোগ, গেল বছর ৩১ ডিসেম্বর তারিখে দশম শ্রেণীর ওই ছাত্রকে জনৈক জফুর মেম্বারের মেশিন ঘরে ছলনা করে ডেকে নিয়ে যায় । পরে সেখানে অভিযুক্ত চার যুবক মিলে ছেলেটিকে বলাৎকার করে।

ছাত্রের মা জানান, ছেলে স্কুল থেকে বাড়ি আসার পর উজ্জল নামে একজন এসে ছেলেকে অজানা কাজের কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। পরে ছেলের কাছ থেকে জানতে পারি যে, আমার ছেলে নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এরপর থেকে ছেলে বলাৎকারের বিচার চেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারের দ্বারে ঘুরে কোন বিচার পাই নি। অবশেষে বাধ্য হয়ে গত ৯ জানুয়ারি কাউনিয়া থানায় ওই চারজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করি।

ভুক্তভোগী ছাত্রটি জানায়, জোর করে তারা আমার সাথে এমন অপকর্ম চালায়। এ ঘটনা কাউকে জানালে তারা আমার বোনকে তুলে নিয়ে গিয়ে একই কাজ করবে বলে ভয় দেখায়। তাই বোনের কথা চিন্তা করে প্রথমে কাউকে বলিনি। পরে নিজের ভেতরে আতঙ্ক কাজ করছিল এবং মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছিলাম। পরে ঘটনাটি পরিবারকে জানাই। তবে এ ঘটনায় ছেলেটির পড়াশুনা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বলে জানায় সে।

এদিকে মামলা দায়েরের পর গত ১৪ জানুয়ারি রংপুর মেডিকেলে বলৎকার হওয়া ছাত্রের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে।

এ বিষয়ে কাউনিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুল ইসলাম ঘটনাস্থান পরিদর্শন করেছে। তিনি ঘটনার প্রাথমিক আলামতও পেয়েছেন বলে জানিয়েছে। ওসি বলেন, মেডিকেল রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে ঘটনার সত্যতা কতটুকু। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এ সংক্রান্ত মামলা দায়ের হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ঘটনাটি ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে বলে জানায় পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য