দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির অধিকার ও মানবাধিকার এবং সহিংসতা বিষয়ক পর্যালোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন,আদিবাসীরা বৃটিশ শাসনের বিরোধীতা করায় প্রতিশোধের জ্বালায় ক্ষুদ্র নৃ-তাত্বিক জাতি গোষ্ঠিকে ধ্বংসের জন্য চক্রান্ত একমাত্র বৃটিশরাই করেছে।

তারা সেই সময় থেকে এখন পর্যন্ত নানান ভাবে আদিবাসী জনগোষ্ঠিকে শোষন ও নির্যাতন করেই চলেছে। সভায় বক্তারা আরো বলেন, যে কোন মানুষের মর্যাদা ও সন্মান ক্ষুন্ন করলেই মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়।

সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সেচ্ছাসেবক প্রিপ ট্রাষ্ট দিনাজপুরের আয়োজনে আদিবাসী সমাজ উন্নয়ন সমিতির সা: সম্পাদক রুবেন মূর্মু‘র সভাপতিত্বে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির অধিকার ও মানবাধিকার এবং সহিংসতা বিষয়ক পর্যালোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত অংশগ্রহনকারীদের মাঝে মানবাধিকার বিষয়ক পর্যালোচনা করেন প্রিপ ট্্রাষ্টের ডেপুটি ডাইরেক্টর ও প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর শেফালী বেগম। সন্মানিত অতিথি ছিলেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সা:সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল,মানবাধিকার কর্মী ও লেখক গবেষক আজহারুল আজাদ জুয়েল। এছাড়াও অনুষ্ঠানের মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিক রতন সিং, কাশি কুমার দাস,মোফাসিরুল রাশেদ মিলন,আদিবাসী নেত্রী মারিয়ে বাস্কে, রবিন।

মানবাধিকার সর্ম্পকে আদিবাসীদের মাঝে সচেনতা বৃদ্ধির জন্যে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক ৩০টি ধারা এবং বাংলাদেশের ১৮টি মৌলিক অধিকার নিয়ে আলোচনা করেন,প্রিপ ট্্রাষ্টের ডেপুটি ডাইরেক্টর ও প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর শেফালী বেগম। অনুষ্ঠানে ১৩ উপজেলার বিভিন্ন বয়সের যুবক/যবুবা ও আদিবাসী মানুষ এবং সংবাদ কর্মীরা অংশ নেয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য