দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ঘোড়াঘাটে ১ হাজার ৫৭৫ হেক্টর জমিতে আলু চাষ করা হয়েছে। এবার আলুর আবাদ বাম্পার ফলনের আশা করছেন আলু চাষীরা।

উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ এখলাস হোসেন সরকার বলেন, চলতি মৌসুমে আগাম জাতের আলু প্রায় ১ মাস পূর্বেই উত্তোলন শুরু করা হয়েছে।

ফলন ভাল ও দামও ভাল পেয়েছেন। আলু আবাদে মুজুরী খরচ, কীটনাশক, সার ও সেচ খরচ কম লাগে। ফলে আলুর আবাদ লাভ জনক। আলু চাষ লাভ জনক হওয়ায় আলু চাষীরা প্রতি বছর আলু চাষ করে থাকেন।

মানুষের শরিরের শর্করার চাহিদা মেটাতে আলু ভাতের পাশাপাশি পুষ্টি চাহিদা পূরণ করে। আলু দ্বারা বহুমুখি খাদ্য তৈরি হয়। বর্তমানে নানা উপায়ে নানা ভাবে আলু দ্বারা বৈজ্ঞানিক উপায়ে খাদ্য তৈরিতে সহায়তা করছে।

আলু চাষীরা আগাম জাতের আলু রোপনের লক্ষ্যে আগাম জাতের ধান রোপন করে থাকেন। এছাড়াও পতিত জমিতেও আগাম জাতের আলুর আবাদ করেন। এই আগাম জাতের আলু চড়া দামে বিক্রি করে লাভবান হন।

এই আশায় তারা প্রতি বছর আগাম জাতের আলু চাষ করেন। চলতি বছরে ১টি পৌরসভা ও উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে মোট ১ হাজার ৫৭৫ হেক্টর জমিতে আলুর চাষ করা হয়েছে।

এর মধ্যে উন্নত ফলনশীল (উফশী) জাতের আলুর চাষ হয়েছে ৯৬০ হেক্টর জমিতে ও স্থানীয় জাতের চাষ করা হয়েছে ৬১৫ হেক্টর।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য