তেহরানের কাছাকাছি বিধ্বস্ত হওয়া যাত্রীবাহী বিমানের বেশিরভাগ আরোহীই ছিলেন ইরানি নাগরিক। ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ১৮০ জন আরোহী নিয়ে বিধ্বস্ত বিমানটিতে অন্তত ৮২ জন ইরানি নাগরিক ছিলেন।

৮ জানুয়ারি বুধবার সকালে তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দর থেকে ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উদ্দেশে উড্ডয়নের পরপরই তা বিধ্বস্ত হয়। ১৮০ আরোহী নিয়ে বিধ্বস্ত বিমানটির কোনও আরোহী বেঁচে নেই বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভাদিম প্রিস্তাইকো বলেন, নিহতদের মধ্যে ৮২ জন ইরানি, ৬৩ জন কানাডীয়, ক্রুসহ ১১ জন ইউক্রেনীয়, ১০ জন সুইডিশ, চারজন আফগান, তিনজন ব্রিটিশ ও তিনজন জার্মান নাগরিক ছিলেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, তেহরানের দক্ষিণ-পশ্চিমে পারান্দ শহরে বোয়িং-৭৩৭ মডেলের বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। তবে ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানের বিদ্যমান উত্তেজনার মধ্যে এ দুর্ঘটনা নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য