ভারতের মেডিকেল শিক্ষার্থী নির্ভয়াকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় উচ্চ আদালতে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামির বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছে দিল্লির আদালত। আগামী ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় তাদের ফাঁসি কার্যকর হবে। খবর এনডিটিভি’র

দোষীদের ফাঁসি কার্যকর করার নির্দেশ এগিয়ে আনতে আদালতে আবেদন জানিয়েছিল নির্ভয়ার পরিবার। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার এই আদেশ জারি করলো দিল্লির আদালত। চার আসামির ফাঁসির রায় কার্যকর হলে নির্ভয়ার পরিবারের ৭ বছরের আইনি লড়াই বিজয়ের মাধ্যমে শেষ হবে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, ২০১৭ সালের ৫ মে নির্ভয়া হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চার আসামীকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন উচ্চ আদালত। পরে তাদেরর সবাই রায় রিভিউয়ের আবেদন করে। তিন আসামি পবন গুপ্ত, বিনয় শর্মা ও মুকেশ সিংয়ের রিভিউ আবেদন আগেই খারিজ হয়ে গিয়েছিল। বাকি ছিল অক্ষয় সিংয়ের আবেদন। গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর তার রিভিউ আবেদনের শুনানি শেষ করে আবেদন খারিজ করে দেন তিন বিচারকের আপিল বেঞ্চ।

আদালত জানায়, ‘২০১৭ সালের রায়ই ঠিক ছিলো। এ নিয়ে নতুন করে ভাবনা-চিন্তার কিছু নেই।’ এব্যাপারে নির্ভয়ার মা আশাদেবী বলেন, ‘আদালতের রায়ে খুশি হয়েছি আমি। মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ার পথে আরও একধাপ এগোলাম।’

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে দক্ষিণ দিল্লিতে বাসের মধ্যে প্যারাম্যাডিক শিক্ষার্থী নির্ভয়াকে ছয়জন মিলে ধর্ষণ করে। পরে তাকে বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দেয় তারা। এতে গুরুতর আহত হওয়া নির্ভয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এই ঘটনায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে পুরো ভারত। নির্ভয়া ধর্ষণ-খুন কাণ্ডে ছয় জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। তাদের এক জন মারা যাওয়ায় তাকে মামলার বাইরে রাখা হয় এবং আরেকজন ওই সময় অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। বাকি চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয় আদালত।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য