অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ দাবানলে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন প্রজাতির অন্তত ৫০ কোটি প্রাণীর প্রাণহানি ঘটেছে। গত সেপ্টেম্বর থেকে দেশটিতে এই ভয়াবহ দাবনলের শুরু হয়। ধারণা করা হচ্ছে আরও কয়েক মাস চলবে এই দাবানল।

সিনডি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস্তুবিদরা জানান, দাবানলে ৪৮০ মিলিয়ন প্রাণীর মৃত্যু ঘটেছে এবং প্রতিনিয়ত এর সংখ্যা বাড়ছে। এসবের মধ্যে স্তন্যপায়ী, পাখি, সরীসৃপ প্রজাতির প্রাণী আছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দাবানলে দেশটির ভিক্টোরিয়া ও নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যে শত শত বাড়ি ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে। এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছে ২৪ জনের বেশি। নিখোঁজ রয়েছেন বেশ কয়েক জন। এছাড়া দাবানলে পুড়ে গেছে এক কোটি ত্রিশ লাখ একর জমি।

সামাজিক ও সংবাদ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ছবিতে হাজারো প্রাণীর পুড়ে মরে যাওয়ার দৃশ্য দেখা গেছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন জানান, অস্ট্রেলিয়ায় চলমান তীব্র দাবানল আরো কয়েকমাস পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। সেইসঙ্গে তিনি উদ্ধার কাজের জন্য একটি নতুন সংস্থা তৈরির ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে এবারের দাবানলের উদ্ধারকাজ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন স্কট মরিসন। সমালোচকরা উদ্ধার কাজে নানা ধরণের অসঙ্গতির কথা তুলে ধরছেন। মেট্রো, বিবিসি, ডেইলি মেইল।

অস্ট্রেলিয়ায় এখনো থামেনি দাবানলের অগ্নিত্রাস।দাউদাউ জ্বলছে চারদিক।আকাশ হয়ে উঠছে যেন রক্তরাঙা।বাতাসে উড়ছে আগুনের ফুলকি।আগুনের লেলিহান শিখা গিলে খাচ্ছে চারদিক।

একদিকে পরিস্থিতি সামাল দিতে দিতেই পুড়ছে আরেক দিক।আগুনের ঘন ধোঁয়ার চাদরে ছেয়ে যাচ্ছে আকাশ।দাবানলের ধোঁয়ায় ঢাকা রাজধানী ক্যানবেরায় বায়ু দূষণের মাত্রা বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে পৌঁছেছে।নগরীর পার্লামেন্ট ভবনও ধোঁয়ায় ঢাকা পড়েছে।তৈরি হয়েছে এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা।কেবল বাইরেই নয় বাড়ি, অফিস, শপিং মল সব জায়গাতেই একই পরিস্থিতি। অসুস্থরা এ বায়ুদূষণের আরো ক্ষতির মুখে রয়েছে এবং এ অবস্থা কতদিন বিরাজ করবে তাও কারো জানা নেই।

ধোঁয়ার কারণে ব্যাহত হচ্ছে দাবানলে আটকা পড়া মানুষদের উদ্ধারকাজও। রোববার এবং সোমবার দুইদিনই ভিক্টোরিয়া এবং নিউ সাউথ ওয়েলসে তাপমাত্রা ও বাতাসের গতি কিছুটা কমে যাওয়া এবং হালকা বৃষ্টিতে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে বিপদ সহসাই কাটবে না।

পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির সুযোগে দাবানলে বন্ধ হওয়া কিছু রাস্তা খুলে দেওয়া এবং কিছু মানুষকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও বাদবাকী মানুষকে উদ্ধারের কাজ ধোঁয়ার কারণে করা সম্ভব হয়নি।

ভিক্টোরিয়া রাজে্যর প্রধানমন্ত্রী ডেনিয়েল এন্ড্রু জানিয়েছেন,রোববার ৪শ’ মানুষকে বিমানে করে উপকূলীয় মাল্লাকোটা থেকে বের করে নিয়ে আসা হয়েছে। সোমবার আরো ৩শ’ জনকে উদ্ধারের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু ধোঁয়ার কারণে দুঃখজনকভাবে তা করা সম্ভব হয়নি।

দেশটিতে গত সেপ্টেম্বর থেকে চলা দাবানলে এ পর্যন্ত অন্তত ২৪ জনের প্রাণহানি হয়েছে।এ পর্যন্ত চলা দাবানলে এ সপ্তাহেই সংকট সবচেয়ে তীব্র আকার ধারণ করেছে।ধ্বংস হয়েছে আরো ঘরবাড়ি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য