ভারতের রাজধানী দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ১১ ফেব্রুয়ারি ভোট গণনা শেষ করে ওই দিনই ফলাফল প্রকাশ হবে বলে ঘোষণা করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুনীল আরোরা। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন সম্পর্কে কমিশনের বিস্তারিত জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

সুনীল আরোরা জানান, একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে তারা বদ্ধ পরিকর। ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে ১৩ হাজার পোলিং স্টেশন স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নে ৯০ হাজার কর্মকর্তা কাজ করবেন।

এদিকে কৌশলগত দিক দিয়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ রাজধানী দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু হয়েছে বেশ কিছুদিন আগেই। আম আদমি পার্টি, বিজেপি ও কংগ্রেস এলাকাভিত্তিক নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচার করা শুরু করেছে।

বহু বছর দিল্লি বিধানসভায় নিজেদের থাবা বসাতে পারেনি বিজেপি। তার উপর আবার ঝাড়খণ্ডে বড়ো ব্যবধানে হেরে বসেছে নরেন্দ্র মোদির দল। তাই দিল্লির প্রতি আলাদা নজর দিচ্ছে বিজেপি। তাদের লক্ষ্য নরেন্দ্র মোদির নির্বাচন জয়ের ফর্মুলা কাজে লাগিয়ে দিল্লিতে জয়লাভ করা।

অন্যদিকে ঝাড়খণ্ডের নির্বাচনের পর অনেকটাই উজ্জীবিত কংগ্রেস শিবির। তাদেরও নজর থাকছে দিল্লির উপর।

তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা এবারও দিল্লির মসনদ দখল করার দিকে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে আম আদমি পার্টি। ২০১৫ সালের দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে মোট ৭০টির মধ্যে ৬৭টি আসন জিতে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল আম আদমি পার্টি। মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ইতোমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন, এবার তাদের লক্ষ্য আরও বড়ো। এমনকি ‘৭০ থেকে ৭০’ এমন স্লোগানও তুলতে শুরু করেছেন আম আদমি পার্টির কর্মীরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য