টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগকে (বিপিএল) কেন্দ্র করে জুয়া খেলার দায়ে কুড়িগ্রামে ৮৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার গ্রেপ্তাকৃতদের বিরুদ্ধে জুয়া আইনে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

শুক্রবার রাত থেকে শনিবার ভোররাত পর্যন্ত কুড়িগ্রাম সদর, নাগেশ্বরী ও উলিপুর অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২৮ হাজার ৭৮০টাকা, ২১টি মোবাইল সেট, ৭টি টিভি ও ১টি ক্যারামবোর্ড জব্দ করে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেনহাজুল আলম জানান, বিপিএলে জুয়া বিরোধী অভিযান চালিয়ে উলিপুর উপজেলায় ৩৩ জন গ্রেপ্তারদের মধ্যে হাতিয়া ইউনিয়নের চৌমহনী থেকে চার জন, ধামশ্রেণি ইন্দ্রারপাড় থেকে সাত জন ও পৌরসভার কাজিরচক থেকে ২২ জন রয়েছে। তাদের কাছ থেকে ১৮টি মোবাইল সেট, ৩টি টিভি ও একটি ক্যারামবোর্ড জব্দ করা হয়েছে।

“ডিবি পুলিশ উলিপুর উপজেলার ময়নার বাজারে মোনায়েম এর হোটেলে অভিযান চালিয়ে বিপিএল জুয়া খেলারত ১৯ জন জুয়ারিকে গ্রেপ্তার করে। অপরদিকে নাগেশ্বরী উপজেলার মনিয়ারহাট, কান্দুরাহাট ও দীঘিরপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৯ জুয়াড়িসহ ৩টি মোবাইল ও ২টি টিভি জব্দ করে।

এদিকে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী থেকে ১৮ জন ও মোগলবাসা থেকে ২৮ জনকে আটক করা হয়েছে। এ সময় ১টি টিভি ও ১টি মোবাইলসেট উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি।

মেনহাজুল বলেন, “বিভিন্ন জায়গা থেকে আমরা অভিযোগ পাচ্ছি। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

খেলা নিয়ে বাজি ধরার ঘটনা জেলায় প্রথম নয় তবে অভিযোগ আমলে নিয়ে প্রথমবারের মত এ জেলায় অভিযান চালাল পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য