কিরকুকে রকেট হামলায় মার্কিন এক ঠিকাদার নিহত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় ইরাক ও সিরিয়ায় ইরানঘনিষ্ঠ এক আধাসামরিক বাহিনীর ৫টি ঘাঁটিতে বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

রোববারের এ হামলায় কাতাইব হিজবুল্লাহর অন্তত ২৫ যোদ্ধা নিহত ও অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে বলে ইরাকি নিরাপত্তা সূত্রগুলো ধারণা দিয়েছে।

তেহরানঘনিষ্ঠ এ কাতাইব হিজবুল্লাহ গোষ্ঠী যুক্তরাষ্ট্রের ‘সন্ত্রাসী সংগঠনের’ তালিকায়ও আছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

শুক্রবার কিরকুকে ইরাকি সেনাবাহিনীর ঘাঁটিতে এক রকেট হামলায় মার্কিন এক বেসামরিক ঠিকাদার নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছিল।

ইরাক-সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলার পর ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানকে সতর্ক করে বলেছেন, মার্কিন নাগরিকদের জীবন হুমকির মুখে থাকলে যুক্তরাষ্ট্রও এভাবে পাল্টা পদক্ষেপ নেবে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মার্ক এসপার পরে সাংবাদিকদের জানান, তাদের এফ-১৫ জঙ্গিবিমানগুলো কাতাইব হিজবুল্লাহ সংশ্লিষ্ট ৫টি ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে।

ঘাঁটিগুলোর মধ্যে তিনটির অবস্থান পশ্চিম ইরাকে, বাকি দুটি সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলের, জানিয়েছে পেন্টাগন।

যেসব স্থাপনায় বিমান হামলা চালানো হয়েছে সেগুলো হয় অস্ত্রাগার, নয়তো কাতাইব হিজবুল্লাহর কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টার, বলেছেন এসপার।

যুক্তরাষ্ট্র পশ্চিমাঞ্চলীয় আল-কাইম জেলায় মিলিশিয়া বাহিনীটির সদরদপ্তরেও হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে ইরাকি নিরাপত্তা সূত্রগুলো। সেখানে নিহতদের মধ্যে গোষ্ঠীটির ৪ কমান্ডারও আছে, বলছে তারা।

ইরানঘনিষ্ঠ শিয়া মুসলমানদের নিয়ে গঠিত কাতাইব হিজবুল্লাহ ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়; মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের ওপর একের পর এক হামলার ক্ষেত্রে এরা ইরানের কুদস বাহিনীর কাছ থেকে নিয়মিতই নানান ধরনের সহযোগিতা পেয়ে আসছে বলে দাবি ওয়াশিংটনের।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের অভিযোগ, কুদস বাহিনীই মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী তালিকায় থাকা লেবাননের হিজবুল্লাহ ও ফিলিস্তিনের ইসলামিক জেহাদের মতো বিভিন্ন সশস্ত্র গোষ্ঠীকে অস্ত্র, প্রশিক্ষণ, অর্থসহ নানান ধরনের মদদ দিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য