ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় এক জার্মান শিক্ষার্থীর পর এবার সরকারের রোষানলে পড়েছেন নরওয়ের এক নারী পর্যটক।

কেরালায় ভ্রমণে যাওয়া ওই নারী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে অংশ নিয়ে ভিসা আইন ভঙ্গ করেছেন অভিযোগে তাকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে শুক্রবার জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

নরওয়ের জান্নে মেটে-জোহানসন নামের ওই নারী গত সোমবার কোচিতে নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে এক পদযাত্রায় অংশ নেন- যেখানে লেখক, চলচ্চিত্র প্রযোজক, অভিনেতা ও পরিচালকসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের শতাধিক মানুষ সামিল হন।

জোহানসন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে জানিয়েছেন,অভিবাসন দফতর তাকে অবিলম্বে ভারত ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া হতে পারে বলে জানানো হয়েছে। তাই নোটিশ পেয়ে তিনি ভারত ছাড়ার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে হোটেলে ফিরেছেন।

কেরালার কোচি বিমানবন্দরের বিদেশিদের আঞ্চলিক রেজিস্ট্রেশন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিক্ষোভে অংশ নিয়ে ভিসার নিয়ম লঙ্ঘন করায় জোহানসনকে দেশে ফিরে যেতে বলা হচ্ছে।

তবে, জোহানসনের বরাত দিয়ে ‘দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া’ জানিয়েছে, তিনি প্রথমে পুলিশের কাছে বিক্ষোভে সামিল হওয়ার অনুমতি চেয়েছিলেন। তাকে মৌখিকভাবে অনুমতি দেওয়ার পরই জোহানসন বিক্ষোভে অংশ নেন।

জোহানসনের এ ঘটনার মতো একইরকম একটি ঘটনা ঘটেছে ক’দিন আগেই। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় গত সপ্তাহে মাদ্রাজের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (আইআইটি) জার্মান শিক্ষার্থী জ্যাকব লিন্ডেনথালকে ভারত ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়।

জ্যাকব লিন্ডেনথাল জার্মানির টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি অব ড্রেসডেন থেকে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে ভারতে গিয়েছিলেন। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে চেন্নাইয়ে তার বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার বিষয়টি স্থানীয় পত্রিকা এবং সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পরই তাকে ভারত ছাড়তে বলা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য