সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ ইদলিবে নতুন করে অভিযান শুরু করেছে দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের অনুগত সেনাবাহিনী। রাশিয়ার সহযোগিতায় এরই মধ্যে শহরটিতে অগ্রসর হয়েছে আসাদ বাহিনী। ভয়াবহ সংঘর্ষের আশঙ্কায় ইতিমধ্যেই বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে ঐ এলাকার লাখখানেক মানুষ। এদিকে নতুন করে আর শরণার্থী গ্রহণের ক্ষমতা তুরস্কের নেই বলে জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান।

ইদলিবে সংঘর্ষের আশঙ্কায় তুর্কি সীমান্তের দিকে অগ্রসর হচ্ছে সিরীয়রা। ইদলিবের স্থানীয় মানবাধিকার কর্মী সুলাইমান আবদুলকাদের আল জাজিরাকে বলেন, বিমান হামলা চালিয়ে ও ব্যারেল বোমা নিক্ষেপ করে নির্বিচারে বেসামরিক কাঠামোগুলোকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়েছে। বেসামরিক নাগরিক ও বিদ্রোহী সবাইকে শহরছাড়া করার উদ্দেশ্যেই এ হামলা চালানো হয়েছে। ইদলিবে এই হামলার ফলে চলতি শীত মৌসুমে ঐ এলাকায় নতুন করে মানবিক সংকট তৈরি হচ্ছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো।

সিরিয়ার রেসপন্স কোঅর্ডিনেশন গ্রুপ এর আগে জানিয়েছিল, গত এক সপ্তাহে প্রায় ১ লাখ সিরীয় পালিয়ে তুরস্ক সীমান্তবর্তী এলাকায় আশ্রয় নিয়েছে। ঐ এলাকায় এরই মধ্যে প্রায় ১০ লাখ সিরীয় শরণার্থী বাস করছে। গত বছরের সেপ্টেম্বরে ইদলিবকে যুদ্ধ প্রশমিত এলাকায় পরিণত ঐক্যমত্যে পৌঁছেছিল তুরস্ক ও সিরিয়া। তবে এরপরও আসাদ সরকারের বাহিনী ঐ এলাকায় হামলা অব্যাহত রাখে। এ পর্যন্ত হামলায় ১ হাজার ৩০০ এর বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

এদিকে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান বলেছেন, ইদলিবের বর্তমান পরিস্থিতিতে সেখানকার হাজার হাজার মানুষ তুরস্কে প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে। কিন্তু শরণার্থীদের আশ্রয় দিতে গিয়ে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে তুরস্ক। তিনি জানান, তুরস্ক নতুন করে আর সিরীয় শরণার্থীদের আশ্রয় দিতে পারবে না।

প্রায় ৩০ লাখ লোক ইদলিবে বসবাস করে। এটাই দেশটির সর্বশেষ গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল যেখানে বিদ্রোহী যোদ্ধা এবং জিহাদিরা অবস্থান করছে। তারা প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদ বাহিনীর বিপক্ষে লড়াই করে যাচ্ছে। এরদোয়ান সতর্ক করে বলেন, ইদলিবের এই লোকজনের ওপর সহিংসতা যদি বন্ধ না হয় তবে এই সংখ্যা আরো বাড়বে। তিনি বলেন, সে ক্ষেত্রে তুরস্কের পক্ষে এভাবে শরণার্থীর বোঝা বহন করা সম্ভব হবে না। এরদোয়ান সতর্ক করে বলেছেন, ইউরোপের দেশগুলোকেও এখন এগিয়ে আসতে হবে। সূত্র: রয়টার্স ও আল জাজিরা

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য