আজ বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ১০ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াম। হঠাৎ জেঁকে বসা শীতে চরম বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ। ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় শীতে দিন-মুজুর ও খেটে খাওয়া মানুষ নাকাল হয়ে পড়েছে।

কুয়াশার চাদর ভেদ করে সূর্য উদিত হলেও কমছেনা শীতের প্রকোপ। ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় জেঁকে বসেছে শীত। ধান, ঘাষ, ফুল, লতা-পাতা, গুল্মে শিশিরে ভেজা থাকছে। সূর্যের আলোয় ঝিলিক মারছে শিশির ফোটা।

গত সোমবার দুপুরে হঠাৎ বৃষ্টির পর শুরু হয়ে উঠে এই হিমেল হাওয়া আর সন্ধ্যা থেকে জেঁকে বসে কন কনে শীত। শীতে সবচেয়ে বেশী দুর্ভোগে পড়েছে শিশু ও বয়স্ক মানুষ। ঠান্ডাজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে তারা।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন জানিয়েছেন এ মৌসুমে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো আজ বৃহম্পতিবার ১০ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াম। তাপমাত্রা আরো কমবে এবং শৈত্য প্রভাব শুরু হবে এ মাসের শেষ সপ্তাহে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য