দিনাজপুর সংবাদাতাঃ রাজাকাররা আর বাংলাদেশে ক্ষমতায় আসতে পারবে না একথা উল্লেখ করে জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, যতদিন লাল সবুজের পতাকা থাকবে, ততদিন বাংলাদেশের স্বাধীনতা অক্ষুণœ থাকবে। আর বাংলার মাটিতে স্বাধীনতা বিরোধীদের ঠাঁই হবে না।

মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশে এমপি গোপাল বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের চিহ্নিত করুন, যাতে তারা মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে। স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস তরুণ প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। এ ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের শিক্ষকের ভূমিকা রাখতে হবে। তবেই তরুণ প্রজন্ম স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস জানবে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসনের পাশাপাশি তাদের ভাতাকে ১০ হাজার টাকা থেকে ৩৫ হাজার টাকা বৃদ্ধি করেছে। যা বিগত কোন সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন করেননি। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য ও সাহসী নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ শত প্রতিকূলতা সত্ত্বেও উন্নয়নে দিকে এগিয়ে চলেছে।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১৬ ডিসেম্বর সোমবার মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সম্বধর্না ও আলোচনা সভা প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইয়ামিন হোসেন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখনে উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাকারিয়া জাকা, বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভীন, পৌর মেয়র মো. মোশারফ হোসেন বাবুল, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কালীপদ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মো. নুর ইসলাম নুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শামিম ফিরোজ আলম।

আলোচনা সভাটির পরিচালনা করেন উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবির।

এর আগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরের শহীদ মিনারে শহীদদের স্মৃতির প্রতি এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহন কারী কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, চিত্রাংকন, রচনা প্রতিযোগিতা, উপস্থিত বক্তৃতা ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অংশগ্রহন কারী বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করেন এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

এদিকে কাহারোল উপজেলা পরিষদ চত্বরের কেন্দ্রীয় স্মৃতিস্তম্ভে শহীদদের প্রতি এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল। পরে আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সন্মাননা পুরস্কার প্রদান করেন।

এর পর তিনি মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহন কারী কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, চিত্রাংকন, রচনা প্রতিযোগিতা, উপস্থিত বক্তৃতা ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অংশগ্রহন কারী বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করেন এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য