যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বিরুদ্ধে লন্ডনের কেন্দ্রস্থলে বিক্ষোভ দেখিয়েছে কয়েকশ মানুষ।

শুক্রবার স্থানীয় সময় রাতে এ বিক্ষোভ হয়; প্রতিবাদকারীরা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ডাউনিং স্ট্রিটের বাইরে থেকে মিছিল নিয়ে ট্রাফালগার স্কয়ার ও থিয়েটার ডিস্ট্রিক্টের সড়কে যান বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

বিক্ষোভকারীরা এ সময় ‘বরিস জনসন: নট মাই প্রাইম মিনিস্টার’ এবং ‘বরিস, বরিস, বরিস: আউট, আউট, আউট’ স্লোগানে আশপাশ প্রকম্পিত করে তোলেন।

তাদের হাতে থাকা প্ল্যাকার্ডে ‘টোরি শাসন প্রত্যাখ্যান করুন’, ‘অভিবাসীরা স্বাগত’ লেখা ছিল বলে বিভিন্ন ছবিতে দেখা গেছে।

বিক্ষোভের কারণে ওই সময়ে লন্ডনের বিভিন্ন সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রতিবাদকারীদের চারপাশে ব্যাপক পরিমাণ পুলিশের উপস্থিতিও লক্ষ্য করা গেছে।

রাজধানীর রাস্তায় বিক্ষোভ হলেও আগেরদিনের নির্বাচনে কনজারভেটিভ পার্টি তিন দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভালো ফল করেছে; পার্লামেন্টে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ায় জানুয়ারির মধ্যে জনসনের ব্রেক্সিট কার্যকরেরও সম্ভাবনা প্রকট হয়েছে।

শুক্রবার বিজয়ী ভাষণে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীও বলেছেন, আর কোনো যদি, কিন্তু, হয়তো নেই; ৩১ জানুয়ারির মধ্যেই যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিচ্ছেদে জনগণ চূড়ান্ত রায় দিয়েছে।

ব্রেক্সিটকে কেন্দ্র করে গত সাড়ে তিনবছর ধরে দেশে যে মতভেদ চলছিল, তা ভুলে যাওয়ার সময় হয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

লন্ডনের বাইরে গ্লাসগোতেও ‘জনসন, আমার প্রধানমন্ত্রী নন’ স্লোগানে বিক্ষোভ হয়েছে বলে জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য