আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটের পাটগ্রামে আওয়ামীলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ পুলিশ সদস্য আহত হওয়ার ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাটগ্রাম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান মিজান বাদী হয়ে সোমবার মধ্য রাতে মামলাটি দায়ের করেন। ওই মামলায় শ্রীরামপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল হাশেম ও সভাপতি প্রার্থী রফিকুল ইসলামসহ ৫ শতাধিক আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীকে আসামী করা হয়েছে। এর আগে সোমবার বিকালে শ্রীরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামীলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দুই সভাপতি প্রার্থীর সংঘর্ষে ৩ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার বিকালে শ্রীরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শ্রীরামপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন আয়োজন করা হয়। সম্মেলন শুরু হওয়ার আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেনের অনুগত সভাপতি প্রার্থী রফিকুল ইসলাম ও পাটগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুলের অনুগত শ্রীরামপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সভাপতি প্রার্থী আবুল হাশেম গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।

এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয় গ্রুপের অন্তত ১২ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। ওই সংঘর্ষে পাটগ্রাম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আশরাফুজ্জামান, কনস্টেবল দিবস কুমার ও কনস্টেবল সাহাদাত হোসেনও আহত হয়েছে। পুলিশ আহত হওয়ার ঘটনায় পাটগ্রাম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান মিজান বাদী হয়ে সোমবার মধ্য রাতে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় শ্রীরামপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল হাশেম ও সভাপতি প্রার্থী রফিকুল ইসলামসহ ৫ শতাধিক আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীকে আসামী করা হয়েছে।

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত জানান, সম্মেলনকে ঘিরে আওয়ামীলীগের বিদ্যমান দুইটি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। পুলিশ আহত হওয়ার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য