দিনাজপুর সংবাদাতাঃ কমতে কমতে হঠাৎ করেই বেড়ে গেলো পেঁয়াজের দাম। হিলি স্থলবন্দরের খুচরা বাজারে দু’দিনের ব্যবধানে প্রকার ভেদে দাম বেড়েছে কেজিতে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। যে পেঁয়াজ দু’দিন আগে খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে প্রতিকেজি ১৩০ থেকে থেকে ১৪০ টাকায়। আজ সেই পেঁয়াজই প্রকারভেদে বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকা কেজি দরে।

এদিকে বাজারে উঠেছে নতুন পাতা পেঁয়াজ, আর তা এখন পাওয়া যাচ্ছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজিতে। এদিকে অবৈধ পথে আমদানি হওয়া ভারতীয় পেঁয়াজের দামও বেড়ে উঠেছে হিলি স্থল বন্দরের খুচরা বাজারে। এদিকে বাড়তে শুরু করেছে রসুনের দামও। প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকা কেজি দরে।

হিলি বাজারের আড়ৎদারা জানান, হিলি স্থলবন্দর ছিলো আমদানিকৃত ভারতীয় পেঁয়াজের বড় মোকাম। প্রতিদিন এই বন্দর দিয়ে ভারত থেকে আমদানি হতো ১২ থেকে ১৫শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ। কিন্তু সে দেশের সরকারের হটকারি সিদ্ধান্তে গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়। আর ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ঘোষনা দেওয়ার পর থেকেই পেঁয়াজের দাম বাড়তে থাকে।

চাহিদার তুলনায় আমদানি কম হওয়ায় পেঁয়াজের দাম লাগামহীন ভাবে বেড়েই চলছে। সরকার মনিটরিং কার্য্যক্রম পরিচালনা করায় পেঁয়াে জর দাম কমে আসে। বাজারে উঠেছে নতুন পাতা পেঁয়াজ, তাও এই দু’দিনের ভ্যবধানে কেজিতে দাম বেড়েছে ২০ টাকা। তবু কম দামে পাতা পেঁয়াজ পেয়ে ক্রেতারা শুকনো পেঁয়াজ কেনা অনেকাংশে কমিয়ে দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য