দিনাজপুরসংবাদাতাঃ বিরামপুরে সুগন্ধি ধানের বাম্পার ফলন। মাঠ জুড়ে ধান কাটার উৎসব।কৃষকের ব্যস্ত সময় চলছে। দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় আমন মৌসমে এ উপজেলার চাষীরা সুগন্ধী ধান চাষের দিকে ঝুকে পড়েছেন।

কারন হিসাবে চাষীরা বলছেন, মোট ধান আবাদ করে ঘরে ধান ঠিকই ওঠে কিন্ত দাম পড়তির কারনে বাম্পার ফলন হলে চাষাবাদ করে লাভের মুখ দেখা যায়না।

এ কারনে মোট ধান চাষাবাদে কৃষক কম করছেন। এবার আমন এর মৌসুমে এ উপজেলার কৃষক অধিকাংশ ফসলি জমিতে বিভিন্ন জাতের সুগন্ধি ধান চাষ করছেন।

কৃষক কাটা মাড়াই ব্যস্ত সময় পার করছেন। সুগন্ধি ধানের চাল বিদেশে রপ্তানি হয় এ কারনে এ ধানের চাহিদা সব সময় থাকে। এ মৌসুমে এই ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে।

চাষীর সুগন্ধি ধানের ভাল দাম পাবেন বলে আশা করছেন। বিরামপুর উপজেলার খিয়ার তেঘরিয়া গ্রামের কৃষক জহুরুল ইসলাম জানান, পুর্বে২৫/৩০ বিঘা জমিতে মোট ধান চাষ করে প্রতি বছর লোকসানে পড়েন, বিরামপুর উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শে এবার তিনি ১৫ বিঘা জমিতে সুগন্ধি ধান এর আবাদ করেছেন, নিয়মিত পরিচর্চার কারনে তার জমিতে কোন প্রকার পোকার আক্রমন হয়নি।

বাম্পার ফলন হয়েছে বিঘাপ্রতি ১২ মন সুগিন্ধ ধান মাড়াই করেছেন। অন্য দিকে অনেক কৃষক জানান,আবাদ করি ঠিকই কিন্ত ধানের দামে কারনে চিকন ধান বাজারে চাহিদা বেশী মোট ধান কেউ নেয়না।

মোটা ধান (প্রতিমন) চেয়ে চিকন ধান ৩/৪শ টাকা বেশী থাকে। চিকন ধানের চাহিদা বেশী।তাই সুগন্ধি ধারে আবাদ বেশী হয়েছে বলে তার জানান।

বিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকতা নিকছন চন্দ্র পাল জানান,(প্রায়)১৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমনের চাষ হয় অধিকাংশ জমিতে কৃষক সুগন্ধি ধান-৩৪ চাষ করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য