দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বিরলে এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ীরা লবণের সংকট গুজব ছড়ানোর ফলে সাধারন মানুষ লবণ সংগ্রহ করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। এ সুযোগে কিছু মুদি ব্যবসায়ীরা ৪০ টাকার লবণ ৮০ থেকে ১০০ টাকায় বিক্রিও করে।

এমন গুজবের ঘটনা মুর্হুতেই ছড়িয়ে পড়লে বিরল উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট জাবের মোহাম্মদ সোয়াইব মঙ্গলবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় বিরল রেল ঘুন্টি লাগোয়া মের্সাস নিউ ভেরাইটি স্টোর্সের স্বত্তাধিকার মোজাম্মেল হক বেশি দামে লবণ বিক্রি করায় তাঁকে ১০ হাজার টাকা জড়িমানার ঘোষনা দেওয়ায় তাঁর লোকজন চড়াও হয়ে ওঠে। দোকান মালিক উচিত মুল্যে লবণ বিক্রির প্রতিশ্রুতি দিলে প্রথমবারের মতো ম্যাজিষ্ট্রেট তাঁকে ক্ষমা করেন।
অসাধু ব্যবসায়ীরা ভ্রাম্যমান আদালতের বিষয় জানতে পেয়ে অনেকেই দোকান বন্ধ করে পালিয়েও যায়। লবণ সংকটের গুজবে কান না দেওয়ার জন্য জনসচেতনতা মুলক প্রচারনাও চালিয়েছে প্রশাসান।

এ সময় বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব, ইন্সপ্ক্টের ইকবার আরিফ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মালেক, বিরল থানার এস আই মাসুদ রানাসহ অন্যান্য সদস্য বৃন্দ।

ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) জাবের মোহাম্মদ সোয়াইব বলেন, অসাধু ব্যবসায়ীরা লবণের সংকটের গুজব ছড়িয়ে চড়া দামে বিক্রির অভিযোগ উঠিয়েছিল। এমন সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে বাজারে মনিটরিং করার সময় ক্রেতাদের লবণের প্যাকেটের গায়ের মুল্যে ক্রয় করতে দেখা গেছে। কোন ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রি করার প্রমান পেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য