১৮ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০টায় কুড়িগ্রামের রাজাহাট উপজেলার চাকিরপশার নদী সংলগ্ন পাঠানহাট নামক স্থানে মরা তিস্তা নদীর (চাকিরপশার নদী) নাব্যতা ফিরে আনতে দখলমুক্ত করে নদীর ওপর সেতু বিহীন সড়কে সেতু স্থাপন, ইজারা বাতিল, নদী খনন করে জলাবদ্ধতা দূরীকরণের দাবিতে সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

চাকিরপশার নদী সুরক্ষা কমিটি রিভারাইন পিপল ও গণকমিটির আয়োজনে নদীর পাড়ে কয়েক’শ মানুষের অংশগ্রহণে মানববন্ধন শেষে সংগঠনের আহ্বায়ক খন্দকার আরিফের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন- রিভারাইন পিপলের পরিচালক, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং আয়োজক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ড. তুহিন ওয়াদুদ।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন আয়োজক সংগঠনের সদস্য সচিব তারেক আহমেদ, রাজারহাট মহিলা কলেজের প্রভাষক জাকির আহমেদ, পুটিকাটা মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষক ও আয়োজক সংগঠনের অন্যতম সংগঠক গজেন্দ্রনাথ রায়, জেলে আবুল কালাম আজাদ, নদীর পাড়ের লিপি বেগম এবং জলাবদ্ধতায় ক্ষতিগ্রস্থ সিরাজুল ইসলাম মুকুল প্রমুখ।

এ সময় প্রধান বক্তা ড. তুহিন ওয়াদুদ বলেন- ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চান দেশের নদীগুলো রক্ষা পাক। দেশের আইন এবং হাইকোর্ট সবকিছুই নদী রক্ষার পক্ষে। কিছু অসাধু ব্যক্তির কারণে এক সময়ের প্রবহমান নদীটি মরতে বসেছে। ফলে উজানে প্রায় ২০হাজার একর জমিতে জলাবদ্ধতাজনিত কারণে চাষাবাদ করা সম্ভব হচ্ছে না।’ ড. তুহিন ওয়াদুদ আরও বলেনÑ আমরা চাই নদীটি দখল মুক্ত করা হোক।

নদীর ইজারা বাতিল করে জেলেদের স্বাধীনভাবে মাছ ধরার জন্য উন্মুক্ত হোক। সেতু বিহীন সড়কে উপযুক্ত মাপের সেতু স্থাপন করা হোক। দীর্ঘ প্রায় ২০ কিলোমিটার নদীটি খনন করাও জরুরি হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে নদীর প্রতি রাষ্ট্রীয় পরিচর্যা না থাকার কারণে নদীটি দখলের শিকার হয়েছে। সরকার যেহেতু সারাদেশে নদী রক্ষায় তৎপর হয়েছে তাই আমরা মনে করি সরকার অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ নদী রক্ষা করবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য