ইরাকের রাজধানী বাগদাদে বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় ৪ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে বলে দেশটির পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকালে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বাগদাদের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত তাদের ঘাঁটির চারপাশ থেকে বিক্ষোভকারীদের আরও দূরে সরিয়ে দিতে গুলি, রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

নিহতদের মধ্যে ৩ জনের মাথায় কাঁদানে গ্যাসের শেল সরাসরি আঘাত হেনেছিল; অন্যজন নিরাপত্তা বাহিনীর ছোড়া স্টান বোমায় আহত হয়ে পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।

নিরাপত্তা বাহিনী এদিন তাহরির স্কয়ারের কাছে জড়ো হওয়া হাজারো বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে গুলি, রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করেছিল বলে সেখানে থাকা রয়টার্সের এক ক্যামেরাম্যানও জানিয়েছেন।

আহতদের অর্ধেকই গুলিবিদ্ধ; বাকিরা কাঁদানে গ্যাসে শ্বাসরুদ্ধ কিংবা রাবার বুলেটে আহত হয়েছেন।

দুর্নীতি ও শাসনব্যবস্থায় বিতৃষ্ণ লাখো ইরাকি অক্টোবরের প্রথম থেকে বাগদাদ ও দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন শহরে লাগাতার বিক্ষোভ শুরু করে।

বুধবার নাসিরিয়া শহরের ২৫ কিলোমিটার দূরের ঘারাফে এক স্থানীয় সরকার কর্মকর্তার বাড়িতে বিক্ষোভকারীরা আগুনও ধরিয়ে দিয়েছিল বলে নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

বিক্ষোভ থামাতে প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদুল মাহদির সরকার বেশকিছু পদক্ষেপ নিলেও আন্দোলনকারীদের শান্ত করা যায়নি।

এখন পর্যন্ত বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষ-সহিংসতায় তিন শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) দমন করার পর দুই বছর ইরাক তুলনামূলক শান্ত থাকলেও গত কয়েক সপ্তাহের আন্দোলন তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে নতুন অস্থিরতার দিকে ঠেলে দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য