গরম ভাতের সঙ্গে থানকুনি পাতার ঝাল ঝাল ভর্তা থেকে খুবই মুখরোচক। শরবত বা সালাদেও ভিন্ন স্বাদ নিয়ে আসে এটি। কেবল খেতেই সুস্বাদু নয়, পুষ্টিগুণের দিক থেকেও অনন্য এই পাতা। দৈনন্দিন জীবনের একাধিক সমস্যার হাত থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত খেতে পারেন থানকুনি পাতা। জেনে নিন এর উপকারিতাগুলো।

১/ ভিটামিনের অভাবে ঘা জাতীয় সমস্যা হয় আমাদের শরীরে। এ থেকে মুক্তি পেতে পান করুন থানকুনি পাতার রস।

২/ কাশি ও ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা দূর করতে থানকুনি পাতার রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খান।

৩/ হজমের সমস্যা বা পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে এই পাতা।

৪/ থানকুনি পাতার সঙ্গে কাঁচাকলা ও পেঁপে দিয়ে পাতলা ঝোল করে খেতে পারেন। এটি পেট পরিষ্কার করে ও লিভার বা যকৃতের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়।

৫/ থানকুনি পাতায় উপস্থিত অ্যামাইনো অ্যাসিড, বিটা ক্যারোটিন, ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ফাইটোকেমিকাল ত্বকের পুষ্টির ঘাটতি দূর করে।

৬/ খাবার এবং আরও নানাভাবে একাধিক ক্ষতিকর টক্সিন আমাদের শরীরে ও রক্তে প্রবেশ করে। প্রতিদিন সকালে অল্প পরিমাণ থানকুনি পাতার রসের সঙ্গে ১ চামচ মধু মিশিয়ে খেলে রক্তে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদানগুলি বেরিয়ে যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য