নীলফামারীতে আদালতের এজলাসে গলাকেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে জাহিদুল ইসলাম শুভ (৩২) নামের এক আসামি। গতকাল দুপুরে নীলফামারী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শুনানিকালে এ ঘটনা ঘটে।

আদালতের নির্দেশে শুভকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শুভ চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

আইনজীবী আল মাসুদ চৌধুরী জানান, শুভ একাধিক মামলার আসামি। তাকে আটকের পর আদালতে হাজির করে একটি চুরির মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানোর আবেদন করে তদন্তকারী কর্মকর্তা। এ সময় সে ক্ষুব্ধ হয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাৎক্ষণিক আদালতের নির্দেশে পুলিশ প্রহরায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সৈয়দপুর জিআরও ফজলুল হক জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে একটি চুরির মামলায় গত ৩ অক্টোবর শুভসহ চার জনকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর সৈয়দপুর থেকে তিনটি মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। এই চুরির মামলায় ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রেফতার হওয়া চার জনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়।

এই মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখাতে তাদের আদালতে হাজির করা হয়। তিনি জানান, দুপুরে শুনানি চলার সময় শুভ তার হাতকড়া দিয়ে নিজের গলাকেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এতে তার গলার কিছু অংশ কেটে যায়।

নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘হাতকড়া বা কলমের মতো ভোতা কিছু দিয়ে গলায় আঘাত করা হয়েছে। রোগী আশঙ্কামুক্ত।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য